আসামিদের হাতে খুন: একজনের মৃত্যুদণ্ড, চারজনের যাবজ্জীবন

আসামিদের হাতে খুন: একজনের মৃত্যুদণ্ড, চারজনের যাবজ্জীবন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জে ‘নিজের জীবনের নিরাপত্তা নেই’ এমন মামলায় বিচারপ্রার্থী আদালতে হাজিরা দিতে এসে প্রতিপক্ষ আসামিদের প্রকাশ্যে চুরিরকাঘাতে খুনের ঘটনায় একজনের মৃত্যুদণ্ড ও চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন জেলা ও দায়রা জজ আদালত। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলো ফয়েজ আহমদ আর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সেবুল মিয়া, সাজিদ মিয়া, শাহান।

বুধবার দুপুরে সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. হেমায়েত উদ্দিন এ রায়ের আদেশ দেন। রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেন সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর খায়রুল কবির রুমেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার গলাখাই গ্রামের মিজানুর রহমান খোকন মিয়ার সঙ্গে তাকে খুনের ঘটনায় জড়িত ফয়েজ মিয়া ও তার সহযোগী আসামি চারজনের জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ ছিল। এ নিয়ে আদালতে মামলা চলছিল।

২০২২ সালের ২১ জুলাই বৃহস্পতিবার ’নিজের জীবনের নিরাপত্তা নেই’ এমন মামলায় বিচারপ্রার্থী খোকন মিয়া আদালতে হাজিরা দিতে আসলে আইনজীবী সমিতির সামনে মিজানুর রহমান খোকন মিয়াকে একা পেয়ে দিনে দুপুরে প্রকাশ্যে আসামি ফয়েজ, সাজিদ, সাহান ও সেবুল উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করতে থাকে।

বিষয়টি দেখে উপস্থিত জনতা, আইনজীবী ও তাদের সহকারীরা এগিয়ে এসে ফয়েজ, সাজিদ ও সেবুলকে ধরে আইনজীবী সমিতিতে আটকে রাখেন।

সাহান নামে অপর একজন পালানোর সময় জনতার হাতে আটক হয়। আটক তিনজনকে চাকুসহ পুলিশে সোপর্দ করেন।

পরে নিহতের বাবা ফটিক মিয়া বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার বিচারকার্য শেষে বুধবার আসামি ফয়েজকে মৃত্যুদণ্ড ও ৪ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদানের আদেশ দেন। রায় প্রদানের সময় আসামি ফয়েজ মিয়া ও সেবুল মিয়া আদালতের এজলাসে উপস্থিত ছিলেন এবং যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আরো ৩ আসামি পলাতক।

এই রকম আরও টপিক

পাঠকপ্রিয়