ভিয়ারিয়ালের মাঠে রুদ্ধশ্বাস জয় বার্সার

সংগৃহীত ছবি

ভিয়ারিয়ালের মাঠে রুদ্ধশ্বাস জয় বার্সার

অনলাইন ডেস্ক

ম্যাচের শুরুতেই পাবলো গাভি এবং ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ংয়ের তিন মিনিটে করা দুই গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। তবে রক্ষণের ভুলে সেই লিড তো ধরে রাখা সম্ভব হলোই না, উল্টো একটা সময় ২-৩ গোলে পিছিয়ে পড়ে অতিথিরা। তারপর আবারও তিন মিনিটের ঝলক, আবারও দুই গোল। ফলাফল, ভিয়ারিয়ালের মাঠ থেকে ৪-৩ গোলের রুদ্ধশ্বাস এক জয় তুলে নিয়েছে কাতালান ক্লাবটি।

লা লিগায় রোববার ভিয়ারিয়ালের মাঠ এল মাদ্রিগালে স্বাগতিকদের বিপক্ষে লড়াইয়ে নামে বার্সেলোনা। নিষেধাজ্ঞার কারণে জাভি হার্নান্দেজ এদিন ছিলেন না বার্সার ডাগআউটে। তার ভাই অস্কার হার্নান্দেজের অধীনে খেলতে নেমে দলটি ১৫ মিনিটেই এগিয়ে ২-০ গোলে। ১২ মিনিটে লামিল ইয়ামালের ক্রস থেকে বল জালে পাঠান গাভি।

দুই মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং।  

অল্প সময়ের ব্যবধানে দুই গোল হজম করলেও ভিয়ারিয়াল দমে যায়নি। ২৬ মিনিটে হুয়ান ফয়েথ ব্যবধান ২-১ করেন। কর্নার থেকে আসা বল দারুণ হেডে জালে পাঠান তিনি। প্রথমার্ধের শেষদিকে আলফোনসো পেদরাসার সহায়তায় স্কোরশিটে সমতা আনেন আলেকসান্দার সরলথ। ২-২ সমতা নিয়েই বিরতিতে যায় দুই দল।  

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আবারও পেদরাসার ঝলক। এবার তিনি বল বাড়িয়ে দিলেন অ্যালেক্স বায়েনাকে। বার্সা রক্ষণের ভুলের পর গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেনকে ফাঁকি দিতে কষ্ট হয়নি তার।

দুই গোলে এগিয়ে থাকার পর ম্যাচে পিছিয়ে পড়তেই বার্সা আক্রমণের ধাঁর বাড়ায়। তাতে ফলও আসে দ্রুত। ৬৮ মিনিটে বার্সাকে ম্যাচে ফেরান ফেরান তোরেস। তার নেওয়া প্রথম শট ব্লক হলেও ফিরতি শটে বল জালেই পাঠান তিনি।

দুই মিনিট পর রবার্ট লেভানডস্কির করা সহজ গোলে আবারও ম্যাচে লিড নেয় বার্সা। সেই গোল শেষ পর্যন্ত আর শোধ দেওয়া হয়নি কিকে সেতিয়েনের শিষ্যদের। কোনো গোল না পেলেও পুরো ম্যাচে দুর্দান্ত খেলেছেন বার্সার ১৬ বছরের ‘ওয়ান্ডার বয়’ ইয়ামাল। ৭৪ মিনিটে বদলি হয়ে মাঠ ছাড়ার আগে তিনি পান প্রতিপক্ষ সমর্থকদের অভিবাদন।

এ জয়ে ৩ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের তিনে উঠে এলো বার্সেলোনা।    

news24bd.tv/SHS