আমরা শুধু ভাতই খাওয়াই না, অস্ত্রও উদ্ধার করি: ডিবি প্রধান হারুন

সংগৃহীত ছবি

আমরা শুধু ভাতই খাওয়াই না, অস্ত্রও উদ্ধার করি: ডিবি প্রধান হারুন

অনলাইন ডেস্ক

ডিএমপির ডিবি প্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেছেন, আমরা শুধু ভাতই খাওয়াই না, অস্ত্রও উদ্ধার করি। অনেকেই মনে করতে পারে, ডিবি একটা ভাতের হোটেল। এতে আমরা ডিমোরালাইজড হবো না। এটা আমাদের মানবিক সাইড।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ সম্প্রতি ডিবি কার্যালয়ে একাধিক ব্যক্তির খাওয়ার ছবি ভাইরাল হওয়ার পর এ নিয়ে দেশজুড়ে হয়েছে বহু আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। অনেকে ডিবি অফিসকে ভাতের হোটেলের সঙ্গে তুলনা দেন। সম্প্রতি ছাত্রদল নেতাদের কাছ থেকে চারটি অস্ত্র উদ্ধারের পর সেই সমালোচনার জবাবে আজ সোমবার দুপুরে এ কথা বলেন ডিবি প্রধান।

হারুন অর রশীদ বলেন, যেখানেই ঘটনা ঘটুক, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করি অপরাধীদের আইডেন্টিফাই করে সাধারণ মানুষকে স্বস্থি দেওয়ার।

অনেকেই মনে করতে পারে, ডিবি একটা ভাতের হোটেল। এতে আমরা ডিমরালাইজড হবো না। এটা আমাদের মানবিক সাইড।

তিনি আরও বলেন, আমাদের কাছে অনেক ভুক্তভোগী, সাধারণ মানুষ আসে। আমরা তাদের প্রবলেমগুলো দ্রুত সলভ করি। অনেক সময় বিকেল হয়ে গেলে আমাদের অফিসাররা মানবিকভাবে বলে, খেতে পারেন, নাস্তা করতে পারেন। এটা আমাদের মানবিকতা।

ডিবিপ্রধান বলেন, কোনো অস্ত্র ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ মাদক ব্যবসায়ী, সন্ত্রাসী ঢাকা শহরে ঘুরে বেড়াবে আর আমাদের ডিবির টিম বসে থাকবে তা হতে পারে না। আমাদের আইনগত প্রক্রিয়ায় যা যা করা দরকার তা আমরা করব।

এর আগে রাজধানীর লালবাগে নাশকতার পরিকল্পনার প্রস্তুতিকালে গত ১৯ আগস্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও মহানগর ছাত্রদলের ছয় নেতাকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় তিনটি বিদেশি পিস্তল ও ৩৬ রাউন্ড গুলি।

এরপর গত ২২ আগস্ট ডিবি মতিঝিল বিভাগ একটি অস্ত্র ও তিনটি ককটেলসহ ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি আবুল হাসান চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করে। তাদের গ্রেপ্তার নিয়ে আজ সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন ডিবি প্রধান।

news24bd.tv/SHS