নোবেল বিজয়ীদের চিঠি বিচার কার্যক্রমের উপর হস্তক্ষেপ: অ্যাটর্নি জেনারেল

প্রতীকী ছবি

 

 

ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিচারিক কার্যক্রম বন্ধে

নোবেল বিজয়ীদের চিঠি বিচার কার্যক্রমের উপর হস্তক্ষেপ: অ্যাটর্নি জেনারেল

হাবিবুল ইসলাম হাবিব

শ্রম আইন লঙ্ঘন ও কর ফাঁকি মামলায় প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিচারিক কার্যক্রম বন্ধে নোবেল বিজয়ীদের দেয়া চিঠিকে বিচার কার্যক্রমের উপর হস্তক্ষেপ বলে মনে করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। এদিকে কলকারখানা অধিদপ্তরের আইনজীবী খুরশিদ আলম নোবেল বিজয়ীদের বাংলাদেশে এসে বিচারিক কার্যক্রম পর্যবেক্ষণের আহ্বান জানিয়েছেন। এর আগেও কয়েক দফায় ড. মুহাম্মদ ইউনূসের মামলার বিষয়ে বিবৃতি দেয় বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তি।

গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ ৪ আসামির বিরুদ্ধে শ্রম আইন লঙ্ঘনের মামলার বিচার কাজ বন্ধ করতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন নোবেল বিজয়ীসহ বিশ্বের ১৮৩ ব্যক্তি।

যে মামলা চ্যালেঞ্জ করে ড. ইউনূস ইতোমধ্যেই দুইবার হাইকোর্টে পরাজিত হয়েছেন। এমনকি সব শেষ সর্বোচ্চ আদালত খারিজ করে দিয়েছে মামলা বাতিল চেয়ে করা আবেদন।  

মঙ্গলবার এ বিষয়ে কল-কারখানা অধিদপ্তরের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, বিদেশীদের এই চিঠি বিচার ব্যবস্থার ওপর সরাসরি হস্তক্ষেপ। যারা চিঠি দিয়েছেন তাদের বাংলাদেশে এসে বিচারিক কার্যক্রম পরিদর্শনের আহ্বান জানান তিনি।

 

আর রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আইন কর্মকর্তা অ্যাটনি জেনারেল এ চিঠিকে দুঃখজনক মন্তব্য করে বলেন, কোনো স্বাধীন দেশের বিচারিক প্রক্রিয়া নিয়ে হস্তক্ষেপ কোনোভাবেই কাম্য নয়।

গত ৬ জুন অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে শ্রম আদালতে এ মামলার  বিচারকার্য শুরু হয়। সাক্ষগ্রহণ শুরু হয় ২২ আগস্ট। আগামী ৩১ আগস্ট আবারও স্বাক্ষর গ্রহণের দিন ধার্য রয়েছে। শ্রম আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে ২০২১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর ড. ইউনূসসহ চারজনের বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের হয়। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে ১২০০ কোটি টাকার কর ফাঁকির আরো মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

news24bd.tv/TR 

এই রকম আরও টপিক