সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ১৮ মিনিট আগে

সিডনিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস পালন

মাসুম বিল্লাহ, অস্ট্রেলিয়া থেকে

সিডনিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস পালন

৩৩ বছর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের ছাদ ধসে নিহতদের স্মরণ করলেন সিডনি প্রবাসী বাংলাদেশিরা। সেই দুঃখভরা দিনকে স্মরণ করে স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় সিডনিতে বসবাসকারী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের সাবেক শিক্ষার্থীরা শোক সভা ও আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

ওয়েন্ট অর্থভিল এলাকার ব্যারন কমিউনিটি সেন্টারে ‘জগন্নাথ হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন, অস্ট্রেলিয়া’ এর উদ্যোগে ওই শোক সভা আয়োজন করা হয়।

১৯৮৫ সালের ১৫ অক্টোবর জগন্নাথ হলের ১৫০ বছরের পুরোনো অ্যাসেম্বলি ভবনের ছাদ ধসে প্রাণ হারান ৩৯ জন ছাত্র-কর্মচারী। ওই ঘটনায় আহত হয়েছিলেন তিন শতাধিক মানুষ। দিনটিকে শোক দিবস হিসেবে পালন করে আসছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

আয়োজক কমিটির সভাপতি মৃণাল দে'র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোক সভায় নিহতদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে আলোচনা অনুষ্ঠান ও ভক্তিমূলক গান পরিবেশিত হয়। নিহতদের স্মরণে মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রার্থনা করা হয়।

সভাপতি মৃণাল দের সভাপতিত্বে এবং ইশান ধর এর উপস্থাপনায় শুরুতে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজামান এবং জগন্নাথ হলের প্রভোস্ট অসীম সরকারের পাঠানো শোক বার্তা পাঠ করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হাইকমিশন অস্ট্রেলিয়ার রাজনৈতিক কাউন্সিলর ফরিদা ইয়াসমিন। অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় কাউন্সিলর সুমন সাহা, রামকৃষ্ণ মিশন অস্ট্রেলিয়ার অশিত মৈত্র, বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়া বৌদ্ধস সোসাইটির স্যাম বড়ুয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আনিস মজুমদার এবং বুয়েটের দিলিপ দত্ত প্রমুখ।

আলোচনা সভাতে বক্তারা জগন্নাথ হল ট্র্যাজেডিতে হতাহতদের নিয়ে স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন। আগামীতে এমন ঘটনা যেন না হয় সেই ব্যাপারে সচেতন থাকার আহ্বান জানানো হয়।

আয়োজক কমিটির সভাপতি মৃণাল দে বলেন, ৩০ বছর পার হয়ে গেলেও নিহতদের জন্য বা এমন ঘটনা প্রতিরোধে কোন উল্লেখযোগ্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। আমরা সরকারসহ অন্যান্য সংগঠনকে গুরুত্বসহকারে বোঝানোর চেষ্টা করবো।

মন্তব্য