বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন শুরু আজ

 মাঠে নামবে আফগানিস্তানে বিপক্ষে

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন শুরু আজ

অনলাইন ডেস্ক

ভারতে অনুষ্ঠেয় ত্রয়োদশ ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মিশন শুরু হচ্ছে আজ। বৈশ্বিক এই আসরে টাইগারদের সামনে প্রথম প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। ধর্মশালার হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে বেলা ১১টায় মুখোমুখি হবে সাকিব আল হাসান ও হাশমতউল্লাহ শহিদির দল।

বর্তমানে শক্তি-সামর্থ্যে এই দুটি দল প্রায় কাছাকাছি পর্যায়েরই।

গত এক দশকে দুই দলের দ্বৈরথটা বেশ জমে উঠছে। এ বছর বাংলাদেশের মাটিতে আফগানরা ২-১-এ সিরিজ জিতলেও এশিয়া কাপে তাদের বেশ ভালো ব্যবধানে হারায় টাইগাররা। এক মাসের ব্যবধানে এবার বিশ্বকাপে লড়বে দুই দল।

বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রথম পরীক্ষা আফগানিস্তান হলেও বাংলাদেশের চোখ আরও দূরে।

নিজেদের সপ্তম বিশ্বকাপে এবার সেমিফাইনাল খেলার স্বপ্ন নিয়ে গেছে টাইগাররা। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহেও বলেন, ‘ভালো বিশ্বকাপ কাটানো, ম্যাচ জেতা আমার লক্ষ্য। আমাদের লক্ষ্য সেমিফাইনালে। ’

আরও পড়ুল: ব্যাটিংয়ে দাপট না দেখালেও পাকিস্তানের বড় জয়

এবার বিশ্বকাপের মূল পর্বে বেশ দাপটের সঙ্গেই উত্তীর্ণ হয়েছে বাংলাদেশ। আইসিসির বিশ্বকাপ সুপার লিগে চমক দেখিয়ে ২৪ ম্যাচে ১৫ জয় নিয়ে ১৪ দলের মধ্যে তিন নম্বরে ছিল টাইগাররা। তাই বিশ্বকাপের সেমিতে খেলার বড় আশা করতেই পারে মিরাজ-শান্তরা।

এবার মাঠের বাইরের আলোচনাকে পেছনে ফেলে বিশ্বমঞ্চে ভালো শুরুর প্রত্যয়ে প্রস্তুত লাল-সবুজেরা। যদিও সেই তুলনায় প্রস্তুতিটা মোটেই ভালো হয়নি সাকিব আল হাসানের দলের। বিশ্বমঞ্চে অভিযানের আগে-পরে নানান বিতর্কের মধ্য দিয়ে গেছে তারা।

বিশ্বকাপ সুপার লিগে দুর্দান্ত পারফর্ম করা বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তামিম ইকবাল। সেই তামিম কয়েক মাস ধরে পিঠের ব্যথার চিকিৎসায় দলের বাইরে ছিটকে গেছেন। বিশ্বকাপে খেলতে চাইলেও ‘আনফিট’ কিংবা ‘অর্ধফিট’ কোনো খেলোয়াড়কে দলে রাখতে চাননি অধিনায়ক সাকিব ও কোচ হাথুরুসিংহে।

বিশ্বকাপের দল ঘোষণার সময় ও এরপর যেসব ঘটনার অবতারণা হয় তা ছিল রীতিমতো লজ্জাজনক। তামিম ইস্যুতে কাঠগড়ায় ওঠেন অধিনায়ক সাকিব, কোচ হাথুরুসিংহে আর বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এ ঘটনার রেশ বিশ্বকাপেও থাকবে এবং দলের বিপর্যয় ঘটবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেন অনেকে।

যদিও দুটি ওয়ার্মআপ ম্যাচে বাংলাদেশ দল মোটামুটি ভালো পারফর্ম করায় স্বস্তি ফিরছে দলে। রানে ফিরেছেন ডানহাতি ব্যাটার লিটন দাস, আর তামিমের জায়গায় দলে ঢোকা বামহাতি ব্যাটার তানজিদ হাসান তামিম দুটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন।

তবে প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান বিবেচনায় জয়ের ব্যাপারে বেশ আশাবাদী টাইগাররা। ধর্মশালার প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে সেই ধারারই প্রতিফলন ঘটতে চায় হাথুরুসিংহের শিষ্যরা। তাই ওপেনিং নিয়ে আপাতত দুশ্চিন্তা কমেছে হাথুরুর। তবে লিটন ও তানজিদই যে ওপেন করবেন, সেই নিশ্চয়তাও তিনি দেননি।

ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ১৫ বারের মুখোমুখিতে বাংলাদেশ ৯টি ও আফগানিস্তান ৬টি ম্যাচ জিতেছে। সর্বশেষ দুটি জয় বাংলাদেশেরই। গত মাসে লাহোরে এশিয়া কাপের ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৮৯ রানে হারায় সাকিবের দল। ওই ম্যাচে সেঞ্চুরি করেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

এর পরও বিশ্বকাপে ফল নিজেদের পক্ষে নিতে আশাবাদী আফগানরা। দলটির অধিনায়ক হাশমতউল্লাহ শহিদি গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রত্যয়ের কথাই শোনালেন। গত জুলাইয়ে বাংলাদেশের মাটিতে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ ২-১-এ জেতাকেই অনুপ্রেরণা হিসেবে নিচ্ছে আফগানরা।

বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান প্রথম মুখোমুখি হয় ২০১৪ সালে। ফতুল্লায় প্রথম দেখায়ই বাংলাদেশকে ৩২ রানে হারিয়ে চমকে দেয় আফগানিস্তান। এরপর ১৪ ম্যাচের ৯টি জিতে অবশ্য বাংলাদেশই এ দ্বৈরথে কর্তৃত্ব করে।

বিশ্বকাপে দুবারের দেখায় দুবারই জিতেছে বাংলাদেশ। ২০১৫ সালে ক্যানবেরায় আফগানদের ১০৫ রানে হারায় বাংলাদেশ। ২০১৯ সালে সাউদাম্পটনে সাকিব ম্যাজিকে টাইগাররা জিতেছে ৬২ রানে। ব্যাট হাতে ৬৯ বলে ৫১ রান করার পর বল হাতে ২৯ রানে ৫ উইকেট শিকার করে তিনি একাই হারিয়ে দেন আফগানদের।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১৪ ইনিংসে ৩০.৬৯ গড়ে ৩৯৯ রান করেছেন সাকিব, যা দেশের হয়ে দ্বিতীয় সেরা। ফিফটি দুটি। উইকেট নিয়েছেন ২৭টি। সেরা ফিগার ৫/২৯। সাউদাম্পটনের মতোই কি আজ ব্যাট-বলে জ্বলে উঠবেন সাকিব? যদি অধিনায়ক ছন্দ খুঁজে পান, তবে জয়ের আশা জাগবে বাংলাদেশের।

ধর্মশালার উইকেট চিরাচরিতভাবে পেসবান্ধব। এখানে মিডিয়াম পেসাররা সুবিধা পান। সুইং পান বোলাররা। টস জয়ী দলটি চোখ বন্ধ করেই বোলিং বেছে নিতে পারে। ২০১৬ সালের টি২০ বিশ্বকাপে ধর্মশালায় তিনটি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। নেদারল্যান্ডস ও ওমানের বিপক্ষে জিতলেও বৃষ্টিতে পণ্ড হয় আয়ারল্যান্ড ম্যাচ।

news24bd.tv/কেআই