চাঁদা না দিলে ব্যবসায়ীদের কুপিয়ে যখম করতো চাপাতি ফাহিম

সংগৃহীত ছবি

চাঁদা না দিলে ব্যবসায়ীদের কুপিয়ে যখম করতো চাপাতি ফাহিম

অনলাইন ডেস্ক

অস্ত্র ও চাপাতিসহ মিরপুরের চিহ্নিত চাঁদাবাজ ফাহিম আহম্মেদ প্রকাশ ওরফে চাপাতি ফাহিমকে (২৬) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার (৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মিরপুর মডেল থানার শেওড়াপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে গ্রেপ্তার করতে গেলে পুলিশকে ছুরিকাহত করে ফাহিম। তার কাছ থেকে একটি  চাপাতি ও একটি রিভালবার উদ্ধার করা হয়েছে।

 

পুলিশ জানায়, ফাহিম মিরপুরের চিহ্নিত চাঁদাবাজ। সে বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চাঁদা নেয়। কেউ চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালেই তাকে চাপাতি দিয়ে কোপায়। আবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেও কোপায়।

চাঁদাবাজি করার সময় হাতে চাপাতি নিয়ে ঘোরে বলে তাকে চাপাতি ফাহিম নামেই ডাকে সবাই। মাস দুয়েক আগেও চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয় সে। কারাগার থেকে ১০ দিন আগে ছাড়া পায়। ছাড়া পেয়ে আবারও চাঁদাবাজি শুরু করে।  

কয়েকদিন ধরে শেওড়াপাড়া ডিসেন্ড সুইট অ্যান্ড ফুড নামের একটি দোকান থেকে চাঁদা দাবি করে। কিন্তু প্রতিবারই দোকান থেকে চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানো হয়। গতকাল সকালে আবারও ওই দোকানে যায় ফাহিম। এবারও চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে চাপাতি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে দোকান থেকে ২৫০০ টাকা নিয়ে চলে যায় ফাহিম। সন্ধ্যায় শেওড়াপাড়া এলাকা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতে তার বাসা থেকে থেকে একটি রিভালবার ও চাপাতি উদ্ধার করা হয়।  

তাকে গ্রেপ্তার করতে গেলে পুলিশকেও ছুরিকাহত করে পালানোর চেষ্টা করে সে। তার ছুরিকাঘাতে পুলিশ সদস্য এসআই সোহেল রানা আহত হন। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গুরুতর আহত তানভীরকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ফাহিমের বিরুদ্ধে ৫টি মামলা আছে।

news24bd.tv/আইএএম