ইসরাইলি জেনারেলকে আটক করেছে ফিলিস্তিনিরা

ইসরাইলি জেনারেলকে আটক করেছে ফিলিস্তিনিরা

অনলাইন ডেস্ক

ইসরায়েলে অতর্কিত হামলা চালিয়ে বেশ কয়েকজন বেসামরিক মানুষ ও সেনাকে ধরে নিয়ে গেছে ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস।

আর ধরে নিয়ে যাওয়াদের মধ্যে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর সাবেক কমান্ডার মেজর জেনারেল নিমরোদ আলোনি রয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তিনি ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর গাজা ডিভিশনের কমান্ডার ছিলেন বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, খালি পায়ে, অর্ধ উলঙ্গ ও আন্ডারওয়্যার পরা অবস্থায় নিমরোদ আলোনিকে টি-শার্টের কলার ধরে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

ফিলিস্তিনি সূত্রের খবরে জানা গেছে আজকের ফিলিস্তিনি সংগ্রামীদের অভিযানে গাজা অঞ্চলের জন্য নিযুক্ত সাবেক প্রধান ইসরাইলি সেনা-কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নিমরোদ আলুনি হামাসের মুজাহিদদের হাতে বন্দি হয়েছেন।  

একটি ছবিতে দেখা গেছে এই জেনারেলকে মাটির ওপর শোয়ানো অবস্থায় টেনে নিয়ে যাচ্ছেন হামাসের যোদ্ধারা। ফিলিস্তিনের গাজার সীমান্তের কাছেই ছিল তার বাসভবন। এই ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে মুক্ত করতে হামাসের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ।

আজকের অভিযানে কমপক্ষে পঞ্চাশ জন ইসরাইলিকে বন্দি করেছে ফিলিস্তিনি সংগ্রামীরা যাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ইসরাইলি সেনা রয়েছেন এবং অন্যরা অবৈধ ইসরাইলি বসতির বাসিন্দা।

ফিলিস্তিনিদের ওপর সাম্প্রতিক দিনগুলোর হত্যাযজ্ঞ ও নৃশংসতার প্রতিবাদে এবং মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল-আকসা মসজিদে বার বার ইহুদিবাদীদের অবমাননার প্রতিশোধ নিতে আজ একযোগে ইসরাইলের নানা শহর ও স্থাপনার ওপর হামলা শুরু করে ফিলিস্তিনের সংগ্রামী দল হামাস ও ইসলামী জিহাদ।  আকস্মিক এ হামলায় অন্তত ১০০ জন ইসরাইলি নিহত ও প্রায় ৯০০ জন আহত হয়েছে।

ওদিকে আলজাজিরা জানিয়েছে,  ইসরাইলি হামলায় গাজায় ১৯৮ জন ফিলিস্তিনি নিহত ও প্রায় এক হাজার ৬১০ জন আহত হয়েছেন।

এই রকম আরও টপিক