পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় স্ত্রী হত্যা, স্বামীর যাবজ্জীবন

পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় স্ত্রী হত্যা, স্বামীর যাবজ্জীবন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় তানিয়া খাতুন নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে স্বামী আজিজুল ভুঁইয়াকে (২৯) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডেদেশ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক মো. আবুল বাশার মিঞা আসামির
উপস্থিতিতে এ দণ্ডাদেশ ঘোষণা দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আজিজুল ভুঁইয়া উপজেলার কয়ড়া হরিশপুর গ্রামের জালাল ভুঁইয়ার ছেলে।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালে উল্লাপাড়া উপজেলার পশ্চিম ভদ্রকোল গ্রামের মাসুদ সরকারের মেয়ে তানিয়ার সঙ্গে পারিবারিক সম্মতিতে বিয়ে হয় আজিজুলের। বিয়ের পর তাদের সংসারে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। এরপর পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন আজিজুল। তিনি মোবাইল ফোনে নিয়মিত এক মেয়ের সঙ্গে কথা বলতেন।

বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করায় তানিয়াকে ব্যাপক মারধর করতেন আজিজুল। তানিয়ার বাবা-মা বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের শরণাপন্ন হন। ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুলকে তার বাড়িতে ডেকে সাবধান করে দেন।

তারপরও তিনি পরকীয়া চালিয়ে যাচ্ছিলেন। ২০২১ সালের ২৫ জানুয়ারি দুপুরের দিকে বিষয়টি নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে তানিয়াকে বেদম মারধর করেন আজিজুল। তানিয়া তখনই তার ভাই তানভীরকে ফোন করে বলেন আমাকে বাঁচাও।

তানভীর ছুটে এসে দেখেন আজিজুলসহ তার বাবা-মা ও ভাইরা দৌড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন। পরে তানভীর বাড়ির ভেতরে গিয়ে ঘরের দরজার পাশে তানিয়ার মরদেহ দেখতে পান। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ছিল। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় নিহত তানিয়ার মা সেলিনা বেগম বাদী হয়ে আজিজুলসহ সাতজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার শুনানি শেষে আদালত আজিজুলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেন। রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট জেবুন্নেছা জেবা রহমান মামলাটি পরিচালনা করেন।

news24bd.tv/তৌহিদ

এই রকম আরও টপিক