ইসরায়েলের হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

সংগৃহীত ছবি

ইসরায়েলের হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

অনলাইন ডেস্ক

হামাসের সাথে চলমান যুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের সমর্থনে ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান-সমর্থিত লেবাননের সশস্ত্রগোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। মঙ্গলবার লেবানন সীমান্তে ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলীয় দুটি সামরিক অবস্থানে এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে বলে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) জানিয়েছে।

পৃথকভাবে লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে হিজবুল্লাহর অবস্থান লক্ষ্য করে হামলা চালানোর দাবি করেছে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী। আইডিএফ বলছে, উত্তর ইসরায়েলে ট্যাংক-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর প্রস্তুতি নেওয়ার সময় হিজবুল্লাহর একটি ঘাঁটিতে হামলা করা হয়েছে।

তবে হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইসরায়েলি সৈন্যরা হতাহত হয়েছেন কি না সেই বিষয়ে কিছু জানায়নি আইডিএফ।

এর আগে, উত্তর ইসরায়েলে অন্তত দুবার রকেট হামলা চালিয়েছে হিজবুল্লাহ। হিজবুল্লাহর হামলায় ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলীয় মেতুলা শহরে সাইরেন বাজিয়ে বাসিন্দাদের সতর্ক করে দেওয়া হয় বলে টাইমস অব ইসরায়েলের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

আইডিএফ বলছে, হিজবুল্লাহর ছোড়া দুটি রকেটই লেবাননের ভূখণ্ডে আছড়ে পড়েছে।

রকেট এবং ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের উৎস লক্ষ্য করে সৈন্যরা গোলাবর্ষণ করছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী।

তিন সপ্তাহের বেশি সময় আগে গত ৭ অক্টোবর হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে ইসরায়েলি বাহিনী ও লেবাননের হিজবুল্লাহ প্রায় প্রত্যেকদিনই হামলা-পাল্টা হামলা চালিয়ে আসছে। সীমান্ত সংঘাতে এখনও পর্যন্ত ৪৬ জন হিজবুল্লাহ যোদ্ধা নিহত এবং আরও ৪৩ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে সশস্ত্র এই গোষ্ঠী।

এছাড়া সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর থেকে ইসরায়েল সীমান্তে ৪২টি পয়েন্টে ৮৪টি হামলা চালিয়েছে হিজবুল্লাহ। ইসরায়েলের সেনাবাহিনী বলছে, হিজবুল্লাহর হামলায় তাদের অন্তত সাত সেনা নিহত হয়েছে।

সূত্র: টাইমস অব ইসরায়েল।

news24bd.tv/Aa