গাজার শরণার্থী শিবিরে যে কারণে বোমা হামলা, যা জানাল ইসরায়েল

সংগৃহীত ছবি

গাজার শরণার্থী শিবিরে যে কারণে বোমা হামলা, যা জানাল ইসরায়েল

অনলাইন ডেস্ক

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলে জাবালিয়া শরণার্থীশিবিরে বোমা হামলা চালানোর কথা আনুষ্ঠানিকভাবে শিকার করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। মঙ্গলবার ইসরায়েলের চালানো এই হামলায় অন্তত ৫০ ফিলিস্তিনি নিহত হন। আহত হন আরও প্রায় ১৫০ জন।

ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনীর মুখপাত্র দানিয়েল হাগারি হামলার কথা স্বীকার করে বলেন, ইসরায়েলের যুদ্ধবিমান জাবালিয়া শরণার্থীশিবিরে বোমা ফেলেছে।

সেখানে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ হামাসের কামান্ডারেরা লুকিয়ে ছিলেন।

বোমা হামলায় হামাসের জ্যেষ্ঠ কমান্ডার ইব্রাহিম বিয়ারি নিহত হয়েছেন বলেও দাবি করেন দানিয়েল। তিনি জানান, ইব্রাহিম ছাড়াও হামাসের আরও কয়েকজন কমান্ডারের প্রাণ গেছে। তাদের হত্যা করার জন্যই শারণার্থী শিবিরে হামলা চালানো হয়েছে।

তবে ইসরায়েলের এ দাবি নাকচ করে দিয়েছে হামাস। জানিয়েছে, সেখানে তাদের কোনো কমান্ডার ছিলেন না। বরং ইসরায়েলি বাহিনী বেসামরিক মানুষের ওপর বোমা ফেলেছে। হামাসের দাবি, এ হামলায় জাবালিয়া শরণার্থীশিবিরে থাকা অন্তত ৪০০ মানুষ হতাহত হয়েছেন।

গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামলা চালায় ফিলিস্তিনের স্বাধীনতা আন্দোলনের সশস্ত্র সংগঠন হামাস। এতে ১ হাজার ৪০০ জনের বেশি মানুষ নিহত হন। সেদিন থেকেই গাজায় নির্বিচার বোমা হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েলি বাহিনী। আজ গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২৫ দিন ধরে চলা ইসরায়েলি হামলায় ৮ হাজার ৫২৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে বেশির ভাগই নারী ও শিশু।

news24bd.tv/SHS