নেতানিয়াহু-ব্লিঙ্কেন বৈঠক

সংগৃহীত ছবি

নেতানিয়াহু-ব্লিঙ্কেন বৈঠক

অনলাইন ডেস্ক

ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজগ ও প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে বৈঠক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। শুক্রবার ব্লিঙ্কেন ইসরায়েল সফরে যান। বৈঠকে তিনি যুদ্ধে বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষার ওপর জোর দিয়েছেন বলে জানা গেছে।
 
ইসরায়েল-হামাস সংঘাত শুরুর পর এটি ব্লিঙ্কেনের তৃতীয় সফর।

গত ৭ অক্টোবর এই সংঘাত শুরু হয়। এর মধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও ইসরায়েল সফর করেছেন।

গাজা উপত্যকায় বেসামরিক নাগরিকদের ক্ষয়ক্ষতি কমানোর বিষয়ে বাস্তব বা দৃঢ় পদক্ষেপের বিষয়ে নেতানিয়াহুর সঙ্গে বৈঠকে ব্লিঙ্কেন জোর দেবেন বলে জানা গেছে।

তেল আবিবে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সদর দপ্তরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মধ্যে আলোচনা চলছে।

সফরের আগে ওয়াশিংটনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় ব্লিঙ্কেন বলেন, ইসরায়েলের সঙ্গে আলোচনার মধ্যে গাজার বেসামরিক নাগরিকদের ক্ষতি কমানোর জন্য বাস্তব বা দৃঢ় পদক্ষেপের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

গত ৭ অক্টোবর হামাস ইসরায়েলে হামলা চালায়। জবাবে ইসরায়েলও হামাস শাসিত গাজায় বিমান হামলা শুরু করে। হামাসের হামলার পর যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এখন অবরুদ্ধ গাজা ঘিরে রেখেছে। পাশাপাশি ভয়াবহ বিমান হামলাও চলছে। ইসরায়েলি হামলায় গাজায় নিহতের সংখ্যা ৯ হাজার ছাড়িয়েছে।  

জাতিসংঘের জরুরি সহায়তা আহ্বান

গাজা ও পশ্চিম তীরের ২৭ লাখ মানুষের সাহায্যের জন্য দ্রুত ১২০ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা চেয়েছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘের মানবিক সংস্থা ওসিএইচএ বলেছে, গাজা ও পশ্চিম তীরের মানুষের প্রয়োজন মেটাতে জরুরি ১২০ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা প্রয়োজন।

১২ ক্যানসার রোগীর মৃত্যু

৭ অক্টোবর ইসরায়েলি হামলা শুরুর পর গাজায় নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ৩ হাজার ৮২৬ শিশু আর ২ হাজার ৪০৫ জন নারী। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল-কুদরা বলেন, গাজায় এখনো ২ হাজার ১০০ জনের মতো নিখোঁজ। তাঁরা বিধ্বস্ত বাড়িঘরের ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে আছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

অবরুদ্ধ গাজায় জ্বালানি ঢুকতে না দেওয়ায় একের পর এক হাসপাতাল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সেখানকার একমাত্র ক্যানসার হাসপাতালটিও বন্ধ হয়ে গেছে। আশরাফ আল-কুদরা বলেন, জ্বালানির অভাবে টার্কিশ ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে। এ হাসপাতালের ১২ ক্যানসার রোগী মারা গেছেন।
news24bd.tv/আইএএম

পাঠকপ্রিয়