নবজাতকের মরদেহের পাশে ছিল ভ্যানিটি ব্যাগ, গ্যাস লাইট

নবজাতকের মরদেহের পাশে ছিল ভ্যানিটি ব্যাগ, গ্যাস লাইট

জুবাইদুল ইসলাম, শেরপুর

শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের পাশে পরিত্যক্ত স্থান থেকে ওই মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনা নিয়ে হাসপাতাল চত্বরে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, রোববার সকাল ১১ টার দিকে শ্রীবরদী হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের নিচ তলার পাশে পরিত্যক্ত স্থানে একটি নবজাতকের মরদেহ দেখতে পান হাসপাতালের আরএমও ডা. অমিও জ্যোতিসহ স্থানীয়রা।

পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে। ওইসময় মরদেহের পাশে একটি ভ্যানিটি ব্যাগ ও একটি টর্চ লাইট ছিল।

শ্রীবরদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রাহাত চৌধুরী বলেন, মহিলা ওয়ার্ডে কোনো ডেলিভারি করা হয় না। ডেলিভারী ওয়ার্ড আলাদা।

তবে কে বা কারা রাতে এই নবজাতকের মরদেহ এখানে ফেলে গেছে।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানার এসআই মো. শফিকুর রহমান জানান, হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের নিচে পরিত্যক্ত অবস্থায় নবজাতকের মরদেহটি পাওয়া যায়। কুকুর বা শেয়ালে নবজাতকের মুখের একটি অংশ খেয়েছে। নবজাতক কন্যার মরদেহের পাশে একটি ভ্যানিটি ব্যাগ ও একটি গ্যাস লাইট ছিল। মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। ওই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু্ মামলা রুজুর প্রক্রিয়া চলছে।

এদিকে হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের পাশে পরিত্যক্ত স্থানে নবজাতকের লাশ দেখতে ভিড় করে উৎসুক লোকজন।

news24bd.tv তৌহিদ

পাঠকপ্রিয়