রংধনুর রফিকের নির্দেশেই শিশু স্বাধীনকে হত্যা, দাবি পরিবারের

রংধনুর রফিকের নির্দেশেই শিশু স্বাধীনকে হত্যা, দাবি পরিবারের

নিজস্ব প্রতিবেদক

রংধনু গ্রুপের মালিক রফিকুল ইসলাম এবং তার ভাই মিজানুর রহমানের নির্দেশেই রূপগঞ্জে শিশু স্বাধীনকে হত্যা করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন নিহত শিশু স্বাধীনের স্বজনরা।

বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে করা সংবাদ সম্মেলনে নিহত সন্তানকে হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন শিশুটির মা উম্মে অন্নি মুন্নী। তার শিশু সন্তান হত্যার সাথে জড়িত রফিক ও মিজানের দৃষ্টান্তমূলক সাজার দাবি করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন এই মা।

নিহত স্বাধীনের দাদার আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে পরিবেশ। নাতি হারিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আক্ষেপ করতে থাকেন দাদা রেজাউল করিম। এসময় তিনি বলেন, রংধনু গ্রুপের মালিক ও কায়েতপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম ও তার ভাই মিজানুর রহমানের জমি দখলের ষড়যন্ত্রের বলি হল তার নয় বছরের নাতি স্বাধীন।  আমি দেশবাসীর কাছে বিচার দিলাম, আমি আমার নাতি হত্যার বিচার চাই।

সংবাদ সম্মেলনে নিহত স্বাধীনের বাবা শাহিনুর রহমান বলেন, তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই নানাভাবে চাপ প্রয়োগ করছিল রফিক ও তার ভাইয়ের সাঙ্গপাঙ্গরা। কয়েকদফা বাড়িতে ও দোকানে হামলাও চালিয়েছে রফিকের গুণ্ডা বাহিনী।

পরিবারের দাবি, জমির জন্য মাত্র নয় বছরের শিশুটিকে খুন করা হয়েছে। আক্ষেপ করে শিশুটির বাবা বলেন, একমাত্র সন্তানের মৃত্যুতে পড়াতে পারেননি জানাজা, দিতে পারেননি মাটি। স্থানীয় মসজিদে মাইকিংও করতে পারেননি তারা।

কায়েতপোড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও রংধনু গ্রুপের মালিক রফিকুল ইসলাম ও তার ভাই মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করে নিহত শিশু স্বাধীনের বাবা শাহিনুর রহমান ও তার পরিবার। অভিযোগ করে তারা আরও বলেন, হত্যা মামলা করতে গেলেও পুলিশ তা অপমৃত্যুর মামলা বলে গ্রহণ করেছে।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ এলাকার কাজীপাড়া ইউনিয়নে রংধনু গ্রুপের মালিক ও কায়েতপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রফিকের দখলদারিতে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। তারাও চান এ সমস্যার সুষ্ঠু সমাধান।