ফরিদপুর-৩: শামীমের বিরুদ্ধে দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগের রায় শুক্রবার

ফরিদপুর-৩: শামীমের বিরুদ্ধে দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগের রায় শুক্রবার

অনলাইন ডেস্ক

আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শামীম হক নেদারল্যান্ডসের নাগরিক, এমন অভিযোগ তুলে তার প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে আবেদন করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে আজাদ। তবে এ অভিযোগে শামীম হক দাবি করেছেন, তিনি নেদারল্যান্ডসের নাগরিকত্ব ত্যাগ করেছেন। এ দাবির স্বপক্ষে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) প্রয়োজনীয় নথিপত্রও জমা দিয়েছেন।

এরই মধ্যে, শামীম হকের নাগরিকত্বের অবস্থা জানতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দিয়েছে ইসি।

এদিকে, শামীম হকের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে আজাদের পক্ষে তার আইনজীবী ব্যারিস্টার মুস্তাফিজুর রহমান খান দাবি করেছেন, শামীম হক নেদারল্যান্ডসের নাগরিকত্ব ত্যাগ করার যে নথিপত্র জমা দিয়েছেন, সেগুলোর সত্যতা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।

শামীম হক দ্বৈত নাগরিকত্বের বিষয়টি নিয়ে বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) ইসিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের সভাপতিত্বে নির্বাচন ভবনে তাঁর প্রার্থিতার বৈধতা নিয়ে শুনানি হয়। পরে শুনানি স্থগিত রেখে ইসি শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) রায়ের দিন নির্ধারণ করেছে।

আইন অনুযায়ী দ্বৈত নাগরিক হলে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন না।

দ্বৈত নাগরিকত্বের বিষয়ে জানতে চাইলে শামীম হক বলেন, আমি নেদারল্যান্ডসের নাগরিক ছিলাম। তবে আমি সম্প্রতি ওই নাগরিকত্ব প্রত্যাহারের জন্য দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি। নেদারল্যান্ডসের দূতাবাস জানিয়েছে, আমার আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ইসিতে জমা দেওয়া হয়েছে।

শামীম হক জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং আবেদনকারী এ কে আজাদ জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য।

news24bd.tv/কেআই

এই রকম আরও টপিক

পাঠকপ্রিয়