১২ দলের সুপার লিগ এখন ৬৪ দলের, ফ্রিতে দেখা যাবে খেলা

সংগৃহীত ছবি

১২ দলের সুপার লিগ এখন ৬৪ দলের, ফ্রিতে দেখা যাবে খেলা

অনলাইন ডেস্ক

উয়েফা একচেটিয়া আধিপত্য ভাঙতেই ইউরোপিয়ান সুপার লিগ আয়োজনের ঘোষণা দেন রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। এসময় তিনি পাশে পান বার্সেলোনা, জুভেন্টাসের মতো কুলীন ক্লাবগুলোকে। শুরুতে ১২ দল নিয়ে এ টুর্নামেন্ট আয়োজনের পরিকল্পনা করে কর্তারা। তবে তাতে বাধ সাধে ফিফা এবং উয়েফা।

তাদের বিরুদ্ধে যায় বলেই, এই টুর্নামেন্টকে অবৈধ ঘোষণা করে তারা।

তবে আজ ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সর্বোচ্চ আদালত রায় দিয়েছেন, বিদ্রোহী টুর্নামেন্ট হিসেবে পরিচিতি পাওয়া ইউরোপিয়ান সুপার লিগ এবং এই টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া ক্লাব বা খেলোয়াড়কে নিষিদ্ধ করা ‘বেআইনি’। আর আদালতের রায় পক্ষে যাওয়ার পরেই সুপার লিগের প্রোমোটাররা ঘোষণা দিয়েছে, ৬৪টি দল নিয়ে তারা নতুন টুর্নামেন্ট আয়োজন করার পরিকল্পনা করছে। এছাড়াও এই টুর্নামেন্টের খেলা দেখা যাবে সম্পূর্ণ মুফতে।

নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, সুপার লিগে খেলা দলগুলোর ক্ষেত্রে প্রোমোশন এবং রেলিগেশন নিয়ম থাকবে। আর খেলা দেখানো হবে ইউনিফাই নামে নতুন একটি স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে।

নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী ৬৪টি দল তিনটি ভিন্ন স্তরের লিগে খেলবে। শীর্ষ লিগ, যেটার নাম দেওয়া হয়েছে স্টার লিগ, সেখানে দুই ভাগে ভাগ হয়ে ১৬টি দল খেলবে। দ্বিতীয় স্তরের গোল্ড লিগে একইভাবে দুই ভাগে ভাগ হয়ে খেলবে ১৬টি দল। আর তৃতীয় স্তরের ব্লু লিগে দল থাকবে ৩২টি। এরা চারটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে।

টুর্নামেন্টের সব খেলা হবে সপ্তাহের মধ্যে। এখন যে সময়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ আর উয়েফার অন্যান্য লিগগুলো হয়। ৩২ দলের মেয়েদের টুর্নামেন্ট আয়োজনেরও পরিকল্পনা করছে এ২২।  

২০২১ সালে প্রথম সুপার লিগ আয়োজনের চেষ্টা করা হয়েছিল। সেবার ব্যর্থ হওয়ার পর ২০২২ সালের শেষের দিকে এ২২ স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট নামে একটি প্রতিষ্ঠান গঠন করা হয়। এই প্রতিষ্ঠানই মূলত সুপার লিগের প্রোমোটার। সেই প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বার্নড রেইচার্ট এক ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘ফুটবল মুক্ত। উয়েফার একাধিপত্য থেকে মুক্ত। এখন নিষেধাজ্ঞার ভয় না করে সেরা পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়ন করা যাবে। ’

রেইচার্ট বলেছেন, ‘এখানে দলগুলো অংশ নেবে মাঠের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে। স্থায়ী কোনো সদস্য থাকবে না আর ক্লাবগুলো ঘরোয়া লিগেও খেলবে। ’ প্রতিযোগিতার নিয়ম অনুযায়ী নকআউট পর্বে ওঠার আগে প্রতিটি ক্লাব ১৪টি করে ম্যাচ খেলবে। টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া প্রতিটি ক্লাব অন্তত ৪০ কোটি ইউরো করে পাবে বলে ঘোষণা দিয়েছে এ২২। যেটা উয়েফার দেওয়া অংশগ্রহণ ফির দ্বিগুণেরও বেশি।

news24bd.tv/SHS

এই রকম আরও টপিক

পাঠকপ্রিয়