গুজরাট উপকূলে তেলবাহী জাহাজে ড্রোন হামলা

অপরিশোধিত তেল নিয়ে ট্যাঙ্কারটি সৌদি আরব থেকে ভারতে যাচ্ছিল বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম। ছবি: সংগৃহীত

গুজরাট উপকূলে তেলবাহী জাহাজে ড্রোন হামলা

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের গুজরাট উপকূলের অদূরে আরব সাগরে শনিবার একটি বাণিজ্যিক জাহাজে ড্রোন হামলায় বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। জাহাজটি পোরবন্দর উপকূল থেকে ২১৭ নটিক্যাল মাইল দূরে ছিল। খবর বিবিসির।

লাইবেরিয়ার পতাকাবাহী রাসায়নিক পণ্য পরিবহনের ওই ট্যাঙ্কারটির সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক আছে বলে জানিয়েছে সমুদ্রপথে নিরাপত্তা প্রদানকারী ফার্ম অ্যামব্রে। অপরিশোধিত তেল নিয়ে ট্যাঙ্কারটি সৌদি আরব থেকে ভারতে যাচ্ছিল বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম।

বিবিসি জানায়, ভারতের পশ্চিমের রাজ্য গুজরাট উপকূলে সেটি হামলার শিকার হয়। হামলা থেকে বিস্ফোরণে জাহাজে আগুন ধরে গিয়েছিল।

আগুনে জাহাজের কাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হলেও সেটিতে থাকা প্রায় ২০ জন ক্রুর সবাই অক্ষত আছেন।

গাজায় ইসরায়েলের হামলার জেরে সম্প্রতি লোহিত সাগরে কয়েকটি পণ্যবাহী বাণিজ্যিক জাহাজ ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের রকেট ও ড্রোন হামলার শিকার হয়েছে। যার জেরে কয়েকটি বৃহৎ পণ্যবাহী কোম্পানি সমুদ্রপথে পণ্য পরিবহনের গুরুত্বপূর্ণ ওই রুটে তাদের জাহাজ চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ রেখেছে।

ইয়েমেনের বেশিরভাগ অঞ্চল এখন হুতি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে। তারা অন্তত ১০টি বাণিজ্যিক জাহাজে শতাধিক ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে।

কিন্তু আরব সাগরে হওয়া শনিবারের হামলা কারা চালিয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

লোহিত সাগর থেকে আরব সাগর অনেক দূরে। আরব সাগরের গুজরাট উপকূলের যেখানে পণ্যবাহী জাহাজটি হামলার শিকার হয়েছে সেখান হুতি বিদ্রোহীদের ড্রোন পৌঁছানোও প্রায় অসম্ভব।

ব্রিটিশ নৌবাহিনীর ইউনাইটেড কিংডম মেরিটাইম ট্রেড অপারেশন্স (ইউকেএমটিও) এর তথ্যানুযায়ী, ভারতের ভেরাভাল নগরী থেকে সমুদ্রে ২১৭ নর্টিক্যাল মাইল দক্ষিণ-পশ্চিমে হামলার ওই ঘটনা ঘটে।

হামলায় শিকার জাহাজটিকে সহায়তার জন্য ভারতীয় নৌবাহিনী একটি এয়ারক্র্যাফ্ট এবং একটি যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়েছে।

news24bd.tv/DHL