বুরুন্ডিতে বিদ্রোহীদের হামলায় ২০ বেসামরিক নাগরিক নিহত

সংগৃহীত ছবি

বুরুন্ডিতে বিদ্রোহীদের হামলায় ২০ বেসামরিক নাগরিক নিহত

অনলাইন ডেস্ক

আফ্রিকান দেশ বুরুন্ডির পশ্চিমাঞ্চলের সীমান্তবর্তী এলাকায় বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরইডি-তাবারা’র হামলায় নারী ও শিশুসহ কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছেন। ২০২১ সাল থেকে নিষ্ক্রিয় থাকা গোষ্ঠীটি এই হামলার মধ্য দিয়ে আবারও আলোচনায় উঠে এলো। খবর আল জাজিরার।

শুক্রবার রাতে হওয়া এ হামলার ঘটনায় নিহতদের মধ্যে ১২ জন শিশু, দুইজন গর্ভবতী নারী এবং একজন পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছেন বলে জানিয়েছেন বুরুন্ডি সরকারের মুখপাত্র জেরোমি নিয়নজিমা।

 

আরইডি-তাবারা গোষ্ঠীকে বুরুন্ডি সরকার সন্ত্রাসী সংগঠন বলে আখ্যা দিয়েছে।

বুরুন্ডি এবং গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোর মধ্যবর্তী সীমান্তের তাঙ্গানিকা লেকের কাছাকাছি অবস্থিত নয়টি বাড়িতে তাবারা গোষ্ঠী হামলাটি পরিচালিত করে। হামলায় আহত আরও নয় ব্যক্তিকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

২০১৫ সাল থেকে তাবারা গোষ্ঠী বুরুন্ডি সরকারের বিপক্ষে যুদ্ধ করছে।

তারা মূলত পাশ্ববর্তী দেশ কঙ্গো থেকে তাদের অভিযান পরিচালনা করে থাকে। এক্সে (পূর্বে টুইটার) প্রকাশিত এক পোস্টে গোষ্ঠীটি শুক্রবারের হামলার দায় স্বীকার করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হামলাকারীরা বুরুন্ডির সেনাবাহিনীর পোশাক পরিধান করছিলো এবং সেনাবাহিনী ও পুলিশ পালিয়ে যাওয়ার পর বেসামরিক ব্যক্তিদের আর কিছুই করার ছিলো না।

প্রিসিল কানইয়াঙ্গে নামের একজন কৃষক জানান, যখন তারা সীমান্তের পুলিশ চৌকিতে হামলা করলো তখনই আমরা বুঝতে পারলাম এরা হচ্ছে বিদ্রোহী গোষ্ঠী। পালানোর সময় অনেক মানুষ গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

হামলাকারীরা মূলত সামরিক চৌকিকে উদ্দেশ্য করে হামলা চালিয়েছিলো বলে জানিয়েছে বুরুন্ডির সেনাবাহিনী।

হামলার পর বুরুন্ডির প্রেসিডেন্ট এভারিস্তে দায়িশিমিয়ে দেশটির সামরিক বাহিনী এবং পুলিশকে বিদ্রোহিদের বিরুদ্ধে সতর্ক অবস্থানে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।

news24bd.tv/ab

পাঠকপ্রিয়