​​​​​​​খালেদা জিয়ার কেবিনে যুবকের প্রবেশের চেষ্টা চক্রান্ত কি না, অভিযোগ রিজভীর

ফাইল ছবি

​​​​​​​খালেদা জিয়ার কেবিনে যুবকের প্রবেশের চেষ্টা চক্রান্ত কি না, অভিযোগ রিজভীর

অনলাইন ডেস্ক

শনিবার ( ২৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার কিছু আগে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার কেবিনে অপরিচিত ও সন্দেহভাজন এক যুবকের প্রবেশের চেষ্টাকে চক্রান্ত কিনা সেই অভিযোগ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
রোববার ( ২৪ ডিসেম্বর)  পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় জনমনে সংশয় ও উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে।  
খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা আরও জোরদার করার আহ্বান জানান তিনি।
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গত ৯ আগস্ট থেকে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

তাঁর চিকিৎসকেরা জানান, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে তাঁকে এখনো চিকিৎসকদের সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে রাখতে হচ্ছে।
দুর্নীতির দুই মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাবন্দী হন। দুই বছরের বেশি সময় কারাবন্দী ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে ২০২০ সালের ২৫ মার্চ সরকার নির্বাহী আদেশে সাজা স্থগিত করে শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি দিয়েছিল। সেই থেকে ছয় মাস পরপর তাঁর সাজা স্থগিত করে মুক্তির মেয়াদ বাড়াচ্ছে সরকার।
শনিবারই ওই সন্দেহভাজন যুবককে আটক করা হয়। ওই যুবকের নাম মো. সুজন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ভাটারা থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। সুজনের বাড়ি ফরিদপুর জেলার সদরপুর থানার ২৩ নম্বর চর চাঁদপুর এর ইন্তাজ মোল্লার ডাঙ্গী এলাকায়। তার বাবার নাম ছোহরাব।
news24bd.tv/ডিডি

 

পাঠকপ্রিয়