নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে হামলায় আহত ডজনখানেক

নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে হামলায় আহত ডজনখানেক

অনলাইন ডেস্ক

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যতোই এগিয়ে আসছে ততোই বাড়ছে প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা। অভিযোগ উঠেছে, নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদের সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থীদের লাঞ্চিত করছেন, বাধা দিচ্ছেন তাদের জনসংযোগে। পিছিয়ে নেই স্বতন্ত্র প্রার্থীরাও, সমানতালে হামলা চালিয়ে যাচ্ছেন, হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন প্রতিদ্বন্দ্বিদেরকে। জামালপুর, ময়মনসিংহ, পটুয়াখালী, ফরিদপুর, গাজীপুর এবং সিরাজগঞ্জ থেকে প্রতিনিধির পাঠানো খবরে বিস্তারিত।

জামালপুর : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে গত সোমবার সন্ধ্যায় ও রাতে নৌকার প্রার্থী মো. মাহবুবুর রহমান এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী (ঈগল) সংসদ সদস্য ডা. মুরাদ হাসানের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ছয়জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে সরিষাবাড়ী থানায় মামলা করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার সন্ধ্যায় সরিষাবাড়ী পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের শিমলাপল্লী তাড়িয়াপাড়া এলাকায় নৌকার প্রার্থী মো. মাহবুবুর রহমানের নির্বাচনী প্রচার কেন্দ্রে হামলা চালান ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ডা. মুরাদ হাসান এমপির সমর্থকরা।

হামলায় নৌকার সমর্থক আব্দুল মান্নান ও শাকিল মিয়া আহত হন। হামলাকারীরা চেয়ার ভাঙচুর, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর ছবি ছিঁড়ে ফেলেন।

এর জের ধরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থক এবং ঈগল প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রাত ৯টা পর্যন্ত কয়েক দফা ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা ঈগল প্রতীকের নির্বাচনী প্রচার কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে কয়েকটি চেয়ার ভাঙচুর করেন। হামলায় ঈগল প্রতীকের সমর্থক কফিল উদ্দিন, রুকন, রুবেল ও দেলকুশ আহত হন। আহতরা সবাই সরিষাবাড়ী উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। খবর পেয়ে সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ ও র্যা বের একটি টহলদল ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) : ময়মনসিংহ-১০ (গফরগাঁও) আসনে নৌকার নির্বাচনী অফিসে হামলা-ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে স্বতন্ত্র প্রার্থী (ট্রাক) আবুল হোসেন দিপুর বিরুদ্ধে। গত সোমবার সন্ধ্যায় লামকাইন নতুনবাজারে এই ঘটনা ঘটে। হামলাকারীদের দায়ের আঘাতে রাজিব মিয়া নামের এক ছাত্রলীগকর্মী আহত হয়েছেন।

ভালুকা (ময়মনসিংহ) : ভালুকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এম এ ওয়াহেদের (ট্রাক) নির্বাচনী ক্যাম্প তছনছ করার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বিকেলে চান্দের বাজারে এই ঘটনা ঘটে।

গলাচিপা (পটুয়াখালী) : পটুয়াখালীর গলাচিপায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল হোসেনের (ঈগল) সমর্থক মো. সাব্বির সর্দারের দোকান ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে ছোনখোল গ্রামের শরিফবাড়ি স্ট্যান্ড বাজারে।

ফরিদপুর : ফরিদপুর সদরের ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নে হামলায় দুজন আহত হয়েছেন। গত সোমবার রাত ৯টার দিকে এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন কামরুল মোল্লা (৪৩) ও সেলিম শেখ (৪০)।

আহতরা জানান, নৌকার প্রচারপত্র বিলি করার সময় একটি মাইক্রোবাস দেখে তাঁরা নৌকা বলে স্লোগান দেন। মাইক্রোবাসের পেছনে কয়েকটি মোটরসাইকেলে হেলমেট পরিহিত কয়েকজন যুবক ছিলেন। তাঁরা হঠাৎ তাঁদের (আহতদের) মারধর শুরু করেন। আশপাশের মানুষ দুজনকে উদ্ধার করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জ-৫ (শাহজাদপুর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর এক সমর্থককে নৌকার সমর্থকরা মারধর করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার পারকোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী (ঈগল) হালিমুল হক মিরু।

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) : গাজীপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম রাসেলের সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তিনজন আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার রাতে উপজেলার গাছবাড়ী এলাকায়। এ ঘটনায় রাতেই স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে শরিফ আল মামুন বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

news24bd.tv/ab

এই রকম আরও টপিক