সচিবালয়ে বাদ পড়া মন্ত্রীদের নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা

সংগৃহীত ছবি

সচিবালয়ে বাদ পড়া মন্ত্রীদের নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের মন্ত্রী তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাকসহ বেশ কজন হেভিওয়েট মন্ত্রী। এ নিয়ে সচিবালয়ে চলছে জোর আলোচনা-সমালোচনা।

সচিবালয়ে আসা মন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কৃষিমন্ত্রীর বাদ পড়ায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন তারা। নসরুল হামিদ, তাজুল ইসলাম ও খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারসহ দুঃখপ্রকাশ করেছেন অনেকেই।

এবারের মন্ত্রিসভার বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এবং পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের নাম বাদ পড়েছে।

এছাড়াও মন্ত্রীদের তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন বর্তমান পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গাজী গোলাম দস্তগীর গাজী, মৎস্য ও প্রাণী সম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ, সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, বন ও জলবায়ু বিষয়কমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈ সিং, রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন জানিয়েছেন, মন্ত্রীরা কে কোন মন্ত্রণালয় পাবেন, সেটা আজ বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে মন্ত্রীদের শপথের পরই জানা যাবে। যদিও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে একটা তালিকা পাওয়া গেছে।

যেখানে স্বরাষ্ট্র, যোগাযোগ বিদ্যুৎসহ বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব অপরিবর্তিতই থাকছে।

গত রোববার (৭ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে টানা চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ।

৩০০ আসনের মধ্যে ২৯৮টির ফলাফল ঘোষণা হয়েছে। এর মধ্যে নৌকা প্রতীকে ২২২টি আসনে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের পর সবচেয়ে বেশি আসন পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। ৬২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। যাদের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগ নেতা।

এদিকে গত দুই মেয়াদে জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দলের আসনে বসা জাতীয় পার্টি শেষ পর্যন্ত ১১ আসনে জয় পেয়েছে।

এছাড়া আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের শরিকদের মধ্যে জাসদ একটি, ওয়ার্কার্স পার্টি একটি ও বিএনপির জোট থেকে বেরিয়ে আসা কল্যাণ পার্টি একটি আসনে জয় পেয়েছে।

news24bd.tv/FA