অভিসংশন তদন্তে বাইডেনের দুর্নীতির বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হওয়া উচিত: আন্দ্রে দারকাশ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও তার ছেলে হান্টার বাইডেন।

অভিসংশন তদন্তে বাইডেনের দুর্নীতির বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হওয়া উচিত: আন্দ্রে দারকাশ

অনলাইন ডেস্ক

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান দল কর্তৃক প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অভিশংসনের জন্য পরিচালিত তদন্তে ইউক্রেনে বাইডেন কর্তৃক সংঘটিত দুর্নীতির বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা উচিৎ বলে বুধবার (১০ জানুয়ারি) প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন ইউক্রেনের আইনসভার সাবেক সদস্য আন্দ্রে দারকাশ। খবর আরটি’র।

রিপাবলিকানদের পরিচালিত অভিশংসন তদন্তের মাধ্যমে জো বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেন কর্তৃক ইউক্রেনে প্রভাব বিস্তারের সঙ্গে জো বাইডেনের সম্পর্ক খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এই তদন্তের মাধ্যমে ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেন ও হান্টার বাইডেন কর্তৃক হস্তক্ষেপের বিষয়টিও খুঁজে দেখা হচ্ছে।

নির্বাচনের সময় হান্টার বাইডেনের ল্যাপটপ সংক্রান্ত একটি খবর আমেরিকান মিডিয়া এবং প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো চেপে গিয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।

সাবেক ইউক্রেনীয় এমপি দারকাশ একজন প্রশ্নবিদ্ধ ব্যক্তি। তিনি ইউক্রেনের সাথে বাইডেনের সম্পর্ক তদন্তকারী এবং সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আইনজীবী রুডি জিউলিয়ানির সাথে কাজ করতেন। বেলারুশের রাজধানী মিনস্কে ইতালিয়ান-মার্কিন সাংবাদিক সিমোনা মানজিয়ান্তেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে দারকাশ ইউক্রেনে বাইডেন দুর্নীতির মাধ্যমে নিজেকে সমৃদ্ধশালী করেছেন বলে দাবী করেছেন।

দারকাশ বলেন, আমি চাই না ইউক্রেনে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে বাইডেনকে অভিশংসন করা হোক, বরং ইউক্রেনের জনগণের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া অর্থের মাধ্যমে নিজেকে ধনী বানানোর অপরাধে তার অভিসংশন হওয়া উচিৎ।

বারাক ওবামার আমলে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করা জো বাইডেন ইউক্রেন বিষয়ে প্রধান দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি ছিলেন। ইউক্রেনে বাইডেনের হস্তক্ষেপ সম্পর্কে ২০১৬ সালে প্রকাশিত এক সংবাদে তিনি দেশটির সরকারপক্ষের প্রধান আইনজীবীকে চাকরিচ্যুত করার ক্ষেত্রে প্রভাব বিস্তার করেছিলেন বলে জানা যায়।

সে সময় ইউক্রেনের সরকারপক্ষের প্রধান আইনজীবী ভিক্টর শকিন বুরিসমা নামের একটি গ্যাস কোম্পানির বিরুদ্ধে তদন্ত পরিচালনা করছিলেন। এই কোম্পানির বোর্ডের একজন সদস্য ছিলেন জো বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেন। সমালোচকদের মতে, ভিক্টরকে চাকরিচ্যুত করার মাধ্যমে জো বাইডেন তার ছেলের অপরাধ ঢাকার চেষ্টা করেছিলেন, যার বিপরীতে জো বাইডেনের বক্তব্য হচ্ছে তিনি একজন দুর্নীতিগ্রস্ত আইনজীবীকে তার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছিলেন কেবল।

দারকাশকে ইউক্রেন এবং মার্কিন সরকার রাশিয়ার চর হিসেবে চিহ্নিত করেছে। দারকাশ মূলত দুর্নীতিবিরোধী সচেতনতামূলক কার্যক্রমের সাথে যুক্ত আছেন এবং তার মতে যারাই ইউক্রেনে বাইডেন পরিবারের দুর্নীতির বিষয়টি উন্মোচিত করার চেষ্টা করে তাদেরকেই রাশিয়ার চর হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়।

মানজিয়ান্তেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে দারকাশ দাবী করেন, ইউক্রেনে মার্কিন প্রভাবকে ব্যবহার করে জো বাইডেন দুর্নীতির সাথে জড়িত প্রত্যেককে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। উদারহণস্বরুপ তিনি বুরিসমার প্রধান নিকোলাই জোচলেভস্কির কথা উল্লেখ করেন, যিনি তার বিরুদ্ধে তদন্ত বন্ধ করার জন্য আইনজীবীদেরকে নগদ ৬ মিলিয়ন ডলার অর্থ দিয়েছিলেন।

দারকাশ আরও বলেন, ধরা পড়ার পরেও জোচলেভস্কি বা তার মধ্যস্ততাকারীদের মধ্যে কারোরই বিচার হয়নি। গত বছর জোচলেভস্কিকে মাত্র ১ হাজার ৮০০ ডলার জরিমানা করা হয়, যা খুবই হাস্যকর একটি ব্যাপার। জোচলেভস্কি রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ব্যবহারের জন্য ইউক্রেন সরকারকে প্রচুর অর্থ দান করেছেন, যার মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে পরিচালিত মামলা থেকে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

দারকাশের দাবী অনুযায়ী এই অর্থের একটি অংশ ইউক্রেনের গোয়েন্দা সংস্থাকে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য দেয়া হয়েছিল। তার মতে, টাকার বিনিময়ে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করার কথা এজেন্সিটি কখনোই অস্বীকার করে না, এবং এসকল কার্যক্রমে অর্থায়নের মাধ্যমে একদিকে বাইডেন পরিবার ইউক্রেনে গুপ্তহত্যা চালাচ্ছে এবং অপরদিকে দুর্নীতির অভিযোগকে ধামাচাপা দিচ্ছে।

news24bd.tv/ab