একই দিনে মাঠে থাকবে আওয়ামী লীগ-বিএনপি

একই দিনে মাঠে থাকবে আওয়ামী লীগ-বিএনপি

একই দিনে মাঠে থাকবে আওয়ামী লীগ-বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর রাজনীতির মাঠে আবার মুখোমুখি হচ্ছে দেশের প্রধান দুটি দল। নির্বাচন বর্জন করে আন্দোলনে থাকা বিএনপির ডাকা কর্মসূচির দিনে পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগও।

শনিবার (২৭ জানুয়ারি) একই সময়ে কাছাকাছি স্থানে রাজধানীতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি কর্মসূচি পালন করেছে। এদিন কালো পতাকা মিছিল শেষে নির্বাচনকে ‘ডামি’ ও ‘অবৈধ’ আখ্যায়িত করে তা বাতিলের দাবিতে আগামী মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) সারাদেশে একই কর্মসূচি দিয়েছে দলটি।

ওইদিন মাঠে থাকার ঘোষণা দিয়েছে ক্ষমতাসীন দলও। সারাদেশে দলটি লাল-সবুজের পতাকাসহ শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ করবে।

শনিবার বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কালো পতাকা মিছিলপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘আগামী ৩০ তারিখে আপনাদের রাজপথে আসতে হবে।

এখন থেকে প্রস্তুত নিতে হবে। অবৈধ ডামি সংসদ বাতিল, নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদের নির্বাচনের দাবিতে ৩০ জানুয়ারি দেশের সব মহানগর, জেলা, উপজেলা, থানায় এবং সব পৌরসভায় কালো পতাকা অনুষ্ঠিত হবে। ’

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘দেশের জনগণের বদলে অন্য রাষ্ট্রের সমর্থন নিয়ে সরকার গঠন করলে তাকে বৈধ সরকার বলা যায় না। এই সরকার জনগণের সরকার নয়। এই সরকার চীন, ভারত, রাশিয়া সমর্থিত সরকার। ’

এর পরপর গুলিস্তানে দলের শান্তি ও গণতন্ত্র সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ৩০ জানুয়ারি সারাদেশে লাল-সবুজের পতাকাসহ শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশের ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচনের খেলা শেষ, এখন খেলা হবে রাজনীতির খেলা। সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে খেলা হবে। খেলা হবে হরতাল, আগুন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে।

তিনি বলেন, কোথায় অক্টোবরের ২৮ তারিখ? এতদিন কোথায় ছিলেন গয়েশ্বর বাবু? বলেছিলেন, অলিগলি খুঁজে পাবো না, কে পালিয়েছে? কুড়াল মাছ খেয়ে পালিয়েছিলো কে? অলিগলি খুঁজে পাননি, যাবেন কোথায়? দেখতে দেখতে ১৫ বছর। সামনে আরও ৫ বছর। মানুষ বাঁচে কয় বছর? এই বছর না ওই বছর? রোজার আগে না রোজার পর।

আন্দোলন করে বিএনপি ভুয়া হয়ে গেছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি আবার মাঠে নেমেছে। আন্দোলন করে তারা ভুয়া হয়ে গেছে। এই আন্দোলনে পাবলিক সাড়া দেয় না। অবরোধ ডাকে কেউ শুনে না, হরতাল ডাকে রাস্তায় যানজট। বিএনপির অবরোধ, হরতাল ভুয়া। বিএনপি মানেই ভুয়া।

তিনি বিএনপির সমালোচনা করে বলেন, বাংলাদেশের মানুষের ভোটে নির্বাচিত সরকার। তারা কালো পতাকা মিছিল করে। কালো পতাকা মানে কী, শোকের মিছিল। কালো পতাকা ভুয়া। বিএনপির নেতাকর্মীরা হতাশ, তারা আর তারেকের ফরমায়েশি কথায় কান দেয় না।

news24bd.tv/aa

পাঠকপ্রিয়