ভুয়া চিকিৎসককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

ভুয়া চিকিৎসককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুরের নকলায় বিএমডিসির নিবন্ধন ছাড়া ভুয়া ডাক্তার সেজে রোগীর সাথে প্রতারণা করার অভিযোগে শিখা রাণী দেবী (৩৭) নামে একজনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নকলা পৌরশহরের পুরাতন হলপট্টি মোড়ে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিহাবুল আরিফ।

শিখা রাণী দেবীর কিশোরগঞ্জের হীরা লাল সাহার মেয়ে। তিনি পল্লী চিকিৎসকের কোর্সে ভর্তি হয়েছেন বলে জানা গেছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, নকলা পৌরশহরের হলপট্টি এলাকায় লতিফ ম্যানসনের দু'তলায় শিখা রানী দেবী চিকিৎসকের স্বীকৃত কোনো ডিগ্রি না থাকা স্বত্বেও নিজের নামের আগে ডাক্তার লিখে নিজের দেওয়া দি প্যারেন্টস মেডিকেল হলে দীর্ঘদিন যাবৎ চেম্বার খুলে শিশু থেকে বিভিন্ন বয়সের রোগীর চিকিৎসা করে আসছিলেন। এমন অভিযোগ পেয়ে সোমবার বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নকলা উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিহাবুল আরিফ। অভিযানকালে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাকে ৫০ হাজার আর্থিক জরিমানা করা হয়। অভিযানকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. ওয়ালীউল্লাহ এবং পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. ওয়ালী উল্লাহ বলেন, রোগী দেখা শুরু করতে বা নামের আগে ডাক্তার লিখতে হলে এমবিবিএস বা বিডিএসের পাশ করার পাশাপাশি বিএমডিসির নিবন্ধন থাকতে হয়। কিন্তু শিখা রানী দেবী চিকিৎসকের কোনো সার্টিফিকেট বা বিএমডিসি'র নিবন্ধন ছাড়াই চিকিৎসাসেবার নামে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছেন। তাই তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালত ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।

এ ব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. শিহাবুল আরিফ বলেন, শিখা রানী দেবী বিএমডিসি’র নিবন্ধন ছাড়াই নামের আগে ডাক্তার ব্যবহার করে রোগী দেখছেন এবং রোগীদের ডাক্তার সম্বলিত সিল ব্যবহার করে ব্যবস্থাপত্র দিচ্ছেন। এজন্য তাকে মেডিকেল এবং ডেন্টাল কাউন্সিল আইন ২০১০ এর ২৯ (১) ধারায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জনস্বার্থে এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আরও পড়ুন: আগামী পাঁচদিন শীত কেমন থাকবে, জানাল আবহাওয়া অফিস

news24bd.tv/তৌহিদ

পাঠকপ্রিয়