বান্ধবীর অশ্লীল ছবি ও ভিডিও প্রকাশের দায়ে যুবকের কারাদণ্ড

আসামী মিজান আলী তুহিন।

বান্ধবীর অশ্লীল ছবি ও ভিডিও প্রকাশের দায়ে যুবকের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

বান্ধবীর অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার অপরাধে মিজান আলী তুহিন (২৬) নামের এক কলেজ ছাত্রকে ৬ বছরের কারাদণ্ড ও ৩ লাখ টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন রাজশাহী বিভাগীয় সাইবার ট্রাইবুনাল আদালত। মূলত বিয়ে করতে না পেরে এই কাজ করেন দণ্ডপ্রাপ্ত যুবক। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. জিয়াউর রহমান এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত মিজান আলী তুহিন (২৬) চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার চাতরা গ্রামের বেলাল উদ্দিনের ছেলে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ইসমত আরা বলেন, মামলার বাদী ও আসামি দুইজনই রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের একই বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। ছাত্রজীবনে তাদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠার এক পর্যায়ে বাদীর সঙ্গে কিছু গোপন ছবি ও ভিডিও সংরক্ষণ করে রাখেন আসামি তুহিন। বাদীকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে তাতে রাজি হননি ওই তরুণী। ২০২২ সালের ১১ নভেম্বর তার অন্যত্র বিয়ে হওয়ার পর থেকেই তুহিন ফেক আইডি খুলে বাদীর স্বামী ও তাকে বিভিন্ন ভিডিও এবং ছবি পাঠাতে থাকেন।

এমনকি পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনদেরও দিতে থাকেন সেসব ছবি।

আরও পড়ুন: মিয়ানমার ইস্যুতে ভারত ও চীনের সাথে আলোচনা চলছে: কাদের

এ নিয়ে তরুণীর স্বামী ও বাদীর পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়। পরে গত ৫ জানুয়ারি ২০২৩ তারিখে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ থানায় মামলা করেন ওই তরুণী। সেই মামলায় আসামিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি ধারায় তিন বছর কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড, অপর একটি ধারায় দুই বছর কারাদণ্ড ও ১ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং আরও একটি ধারায় এক বছরের কারাদণ্ড ও ১ লাখ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত। অর্থদণ্ড প্রদানে ব্যর্থ হলে আরও তিন মাস করে কারাদণ্ড হবে বলে রায় ঘোষণা করেন আদালত।

রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

news24bd.tv/ab

পাঠকপ্রিয়