নোবিপ্রবিতে কর্মকর্তাদের দুইদিনব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে দুইদিনব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন হয়েছে।

নোবিপ্রবিতে কর্মকর্তাদের দুইদিনব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে দুইদিনব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলের (আইকিউএসি) সেমিনার কক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম। আইকিউএসি ‘ফাউন্ডেশন ট্রেনিং ফর ইউনিভার্সিটি অফিসার্স’ শীর্ষক এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

আইকিউএসি পরিচালক অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মাননীয় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. আশিকুর রহমান খান ও রেজিস্ট্রার জনাব মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক জনাব মো. মুহাইমিনুল ইসলাম সেলিম।

অনুষ্ঠানে  উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম বলেন, একটি প্রতিষ্ঠানের অগ্রযাত্রা ও উন্নয়ন অনেকাংশেই নির্ভর করে সেখানকার কর্মকর্তাদের দক্ষতা ও যোগ্যতার ওপর। এ বিষয়টিকে বিবেচনায় নিয়ে আজকের এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। আশা করছি, কর্মকর্তাদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে এ কর্মসূচি সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

প্রশিক্ষণার্থী কর্মকর্তাদের উদ্দেশে উপাচার্য বলেন, কর্মক্ষেত্রে প্রাতিষ্ঠানিক ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করতে হবে। আপনারা শুদ্ধাচার, সততা ও স্বচ্ছতা বজায় রেখে কাজ করলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক কার্যক্রমে এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা তাদের কাঙ্খিত সেবা পাবেন। এক্ষেত্রে আপনারা নিজ নিজ কাজ সুচারুভাবে সম্পাদনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা প্রদান করবেন, এই আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

অনুষ্ঠানে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, এ ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচিকে সুযোগ হিসেবে নিয়ে আপনারা দক্ষতা বাড়ানোর চেষ্টা করবেন, শেখার চেষ্টা করবেন। দাপ্তরিক দৈনন্দিন কার্যক্রমের পাশাপাশি একজন কর্মকর্তার আচরণ ও শিষ্টাচারের বিষয়টিও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এ বিষয়েও আপনারা খেয়াল রাখবেন। ভুল-ত্রুটি সংশোধনের চেষ্টা করবেন।

আরও পড়ুন: গাজায় স্থল অভিযানের জন্য সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত হতে বললেন নেতানিয়াহু

কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর বলেন, শাখা কর্মকর্তারা হলেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের মূল চালিকাশক্তি। সাধারণত তাদের হাত ধরেই যেকোনো নথির উপস্থাপন হয়। তাই শাখা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন, বিধি ও সংবিধিসহ বিভিন্ন নীতিমালা বিষয়ে ওয়াকিবহাল থাকা জরুরি। এ ধরনের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আপনারা এসব বিষয়ে জানার সুযোগ পাবেন।

অধ্যাপক ড. মোঃ আশিকুর রহমান খান বলেন, সবাইকে বিশ্ববিদ্যালয়কে ধারণ করে আন্তরিকতার সঙ্গে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান জানাই। বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে গেলে এর মাধ্যমে সমাজ ও রাষ্ট্রও সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।

মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন বলেন, কর্মকর্তা হিসেবে নিজ নিজ কার্যক্রম সুচারুভাবে সম্পন্ন করা আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক ও নৈতিক দায়িত্ব। আপনারা সকলে প্রতিষ্ঠানের মূল চেতনা বুকে ধারণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সর্বোচ্চটুকু করার চেষ্টা করবেন, এমনটাই প্রত্যাশা করি।

news24bd.tv/ab

পাঠকপ্রিয়