ময়মনসিংহ বিভাগের শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সংবর্ধনা

জয়িতা অন্বেষণ বাংলাদেশের আওতায় ময়মনসিংহ বিভাগের শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতাকে সংবর্ধনা দিয়েছে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

ময়মনসিংহ বিভাগের শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সংবর্ধনা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

জয়িতা অন্বেষণ বাংলাদেশের আওতায় ময়মনসিংহ বিভাগের শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতাকে সংবর্ধনা দিয়েছে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগরীর টাউনহলের অ্যাডভোকেট তারেক স্মৃতি মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিভাগীয় কমিশনার উম্মে সালমা তানজিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাজমা মোবারেক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, দেশের অর্ধেক হচ্ছে নারী আর অর্ধেক হচ্ছে পুরুষ।

এই অর্ধেক নারী জনগোষ্ঠীকে পিছিয়ে রেখে স্মার্ট বাংলাদেশ গঠন করা সম্ভব নয়। তাই নারীদেরকে সমানভাবে এগিয়ে আসতে হবে। এখানে যারা জয়িতা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তারা হচ্ছেন সমাজের সকল বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফল নারীর একটি প্রতীকী নাম। তাই সরকার নারীদেরকে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা ও ভাতা প্রদান করছে।
নারীর ক্ষমতায়নে টানা নবমবারের মত দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে। পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর তুলনায় আমাদের নারীদের সামাজিক অবস্থান অনেক ভালো হলেও সেটা পূর্ণাঙ্গ নয়।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আজ বিশ্বব্যাপী একটি মডেল হিসেবে গণ্য হচ্ছে। নারীদেরকে উচ্চপর্যায়ে ক্ষমতায়ন দেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশের নারী সমাজের অগ্রগতি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। নারী সমাজের মধ্যে বিরাজমান সকল প্রকার বিভ্রান্তি ও আশংকা দূর করে নারীদেরকে সকল প্রতিবন্ধকতা উপেক্ষা করার শক্তিতে উজ্জীবিত ও অনুপ্রাণিত করার লক্ষ্যকে সামনে রেখে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় কাজ করে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: শবে বরাত কবে, জানা গেল

অনুষ্ঠানে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কেয়া খান, ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি শাহ আবিদ হোসেন বিপিএম (বার), অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামুল আলম, ময়মনসিংহ মহিলা ও শিশুবিষয়ক অধিদপ্তরের উপপরিচালক নাজনীন সুলতানা উপস্থিত ছিলেন।

এতে অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার আনারকলি, শিক্ষা ও চাকরি ক্ষেত্রে ময়মনসিংহের সদর উপজেলার আছমা আক্তার, সফল জননী নেত্রকোনা কেন্দুয়া উপজেলার নূরজাহান খানম, উদ্যমী নারী ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার সালমা বেগম ও সমাজ উন্নয়নে ময়মনসিংহের সদর উপজেলার শামীমা আক্তারকে পুরস্কার ও সম্মাননা স্মারক তুলে দেন অতিধিবৃন্দ।  

এছাড়া ময়মনসিংহ বিভাগের চারটি জেলার পাঁচ ক্যাটাগরিতে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত আরও ১৪ জয়িতার মধ্যে রয়েছেন শেরপুরের মোছা. ফারজানা ববি, রেনিতা নকরেক, আশরাফুন্নিসা মুসলিমা, মোছা. দিলশাদ জাহান ডালিয়া ও সোহাগী আক্তার। জামালপুর থেকে শাকিলা আশরাফ, মোছা. সালমা, অবিরেন নেছা, মোছা. ফাতেমা বেগম, মাসুমা ইয়াসমিন। নেত্রকোনার সাবা নওরিন, কামরুন নাহার ও আফরোজা বেগম এবং ময়মনসিংহের আম্বিয়া খানমও জয়িতা হয়েছেন।

news24bd.tv/ab

পাঠকপ্রিয়