সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

হুমায়ুন কবির সূর্য, কুড়িগ্রাম

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। পুলিশ ভিকটিম স্কুল শিক্ষার্থীকে রোববার রাতে উদ্ধার করে সোমরার বিকেলে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ার ছড়ার সমন্বয়টারী গ্রামের মোশাররফ হোসেন স্ত্রীসহ ঢাকার ইটভাটায় কাজ করতে যান। এ সময় তালুকদার পাড়া গ্রামে নানা আবুবক্কর সিদ্দিকের বাড়িতে মেয়েকে রেখে যান।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় মেয়েটি বাইসাইকেলযোগে ওষুধ কেনার জন্য পার্শ্ববর্তী টনকার মোড় বাজারে যায়। ওষুধ কিনে বাড়ি ফেরার পথে একাকী পেয়ে দাসিয়ার ছড়া রাসমেলা গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে সোহাগ (১৮), একই গ্রামের রফিকুল ইসলাম অপুর ছেলে ময়নুল ইসলাম (২২) ও মজিদুল ইসলামের ছেলে মিজানুর রহমান (২৩) মেয়েটির মুখ চেপে ধরে রাসমেলা নদীর পাড়ে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। কিছুক্ষণ পর ওই পথ দিয়ে চলাচলকারী পথচারীরা রাস্তার ধারে বাইসাইকেল পরে থাকতে দেখে এদিক-সেদিক খোঁজাখুঁজি করলে নদীর ধারে ওই তিনজনকে দেখতে পায়। লোকজনের চিৎকারে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়।

এ সময় স্থানীয়রা ধাওয়া করে তাদের শনাক্ত করে। পরে মেয়েটিকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে তার নানীর বাড়ি পৌঁছে দেয়।

এ ঘটনার পর আপোষ মীমাংসার জন্য স্থানীয় মাতব্বররা রোববার সারাদিন ওই পরিবারের ওপর চাপ প্রয়োগ করে ব্যর্থ হয়।

আরও পড়ুন: থানায় ঢুকে ওসির ওপর হামলা

সোমবার সকালে ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরেন মোশারফ হোসেন। পরে তিনি বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারি বিকেলে ফুলবাড়ী থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

মেয়েটির বাবা বলেন, তিন নরপশু মিলে আমার মেয়েটার সর্বনাশ করেছে। আমি ধর্ষকদের উপযুক্ত শাস্তি চাই।

আরও পড়ুন: এসএমজি-পিস্তলসহ আটক ২২ রোহিঙ্গা ৩ দিনের রিমান্ডে

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রাণকৃষ্ণ দেবনাথ জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। আসামি গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: বিজয়ী জামায়াত নেতা বললেন; ইমরানের প্রার্থীই জিতেছেন, আমি নই

আরও পড়ুন: হাইকোর্টে হারলেন ড. ইউনূস, দিতে হবে ৫০ কোটি টাকা

news24bd.tv/তৌহিদ

এই রকম আরও টপিক

পাঠকপ্রিয়