ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এক গ্রুপের হামলায় অন্য গ্রুপের ৯ জন আহত

মঙ্গলবার মধ্যরাতে বিশ্ববিদ্যালয় আব্দুল মান্নান হল এলাকায় মারামারির ঘটনা ঘটে - নিউজ টোয়েন্টিফোর

ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এক গ্রুপের হামলায় অন্য গ্রুপের ৯ জন আহত

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতির গ্রুপের হামলা সাধারণ সম্পাদক গ্রুপের অন্তত ৯ ছাত্র আহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার মধ্যরাতে বিশ্ববিদ্যালয় আব্দুল মান্নান হল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতেরা হলেন, বিএনবি বিভাগের সোহানুর রহমান সোহান, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের রকি, আইসিটি বিভাগের জয় ধর, ক্যামিষ্ট্রি বিভাগের সজিব শেখ, অর্থনীতি বিভাগের সৌরভ, মিনার, নাঈম রাজ, আইসিটি বিভাগের সৌরভ, টেক্সটাইল বিভাগের তামীম।

আহতদের মধ্য দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

এদের মধ্যে সোহানকে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল (পঙ্গু হাসপাতাল) ও রকিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা সবাই টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাতের খাবার শেষে আহতরা আব্দুল মান্নান হলের ছাদে বসে গল্প করছিলেন। এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মানিক শীলের অনুসারী সাফি মোরসালিন, আবিদ, রকি, ছাত্রদল সমর্থিত ইদ্রিস, রবিউল, রুবেল, বিশ্বজিৎ, অপুর নেতৃত্বে ২৫-৩০ জন বহিরাগত সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়।

এ হামলার এক পর্যায়ে সোহানকে তারা তিন তলার ছাদ থেকে নিচে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় আহত ৯ জনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ূন কবীর বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ কঠোর হাতে প্রতিহত করবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ সুন্দর রাখতে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের কঠোর শাস্তি দাবি করেন তিনি।

ছাত্রলীগ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মানিক শীল ঘটনার সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা অস্বীকার করে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের খুঁজে বের করে শাস্তির দাবি জানান।

টাঙ্গাইল সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাদিকুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। ঘটনার পরপরই আব্দুল মান্নান হলের বিভিন্ন কক্ষে অভিযান চালিয়ে ২০টি লোহার রড ও দুটি চাপাতি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানান তিনি।

news24bd.tv/SHS

পাঠকপ্রিয়