শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০১ ঘণ্টা ১৮ মিনিট আগে

মুখে দুর্গন্ধের কারণ ও প্রতিকার যেভাবে

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

মুখে দুর্গন্ধের কারণ ও প্রতিকার যেভাবে

আপনার কি মুখে দুর্গন্ধ হয়? বিষয়টিকে শিকড় থেকে খোঁজাই ভাল। আর তাতেই দ্রুত সমস্যা মেটানো সম্ভব। 

মুখের দুর্গন্ধ কেন হয়, তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বহু গবেষণা চলছে। সে সব গবেষণা থেকে সুনির্দিষ্টভাবে কয়েকটি কারণ চিহ্নিত করা হয়েছে। তা হলো:

১। প্রতিবার খাবার গ্রহণে মুখের ভেতরে খাদ্য আবরণ দাঁতের ফাঁকে, মাড়ির ভেতর জমে থেকে ডেন্টাল প্লাক সৃষ্টি এবং তা থেকে মাড়ির প্রদাহ (পেরিওডেন্টাল ডিজিজ)।

২। দাঁতের ফাঁকে মুখের ভেতরে খাদ্যকণা ও জীবাণুর অবস্থান।

৩। মুখের ভেতরে ছত্রাক ও ফাঙ্গাসের কারণে ঘা (ক্যানডিজিস)।

৪। মুখের যে কোনও ধরনের ঘা বা ক্ষত।

৫। ডেন্টাল সিস্ট বা টিউমার।

৬। মুখের ক্যান্সার।

৭। দুর্ঘটনার কারণে কোনও ফ্র্যাকচার ও ক্ষত।

তাছাড়া দেহের অন্যান্য রোগের কারণেও মুখের দুর্গন্ধ হতে পারে। যেমন-

ক। পেপটিক আলসার বা পরিপাকতন্ত্রের রোগ।

খ। কিডনি রোগ।

গ। লিভারের রোগ।

ঘ। গলা বা পাকস্থলীর ক্যান্সার।

ঙ। হাইপার টেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ।

চ। গর্ভাবস্থা।

ছ। ডায়াবেটিস বা বহুমূত্র রোগ।

জ। এইডস।

ঝ। নাক, কান, গলার রোগ।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য কয়েকটি ঘরোয়া উপায়:

১) দিনে অন্তত ২ বার দাঁত মাজা দরকার। এতে দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী, ব্যাক্টেরিয়া বা জীবাণু মুখে বাসা বাঁধতে পারে না।

২) বিশেষজ্ঞদের মতে, মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য গ্রীন টি বা যে কোনও কালো চা (ব্ল্যাক টি) খুবই উপকারী। চা মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী ব্যাক্টেরিয়া বা জীবাণুগুলোকে জন্মাতেই দেয় না।

৩) মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করলে মুখের দুর্গন্ধ কমে যায়। এসেন্সিয়াল অয়েল যুক্ত মাউথ ওয়াশ ব্যবহারে মুখের দুর্গন্ধ কমে যায়। মাউথ ওয়াশে টি ট্রি অয়েল, পিপারমেন্ট অয়েল এবং লেমন অয়েল থাকলে তা খুবই উপকার দেয় মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে।

৪) পার্সলে, রোজমেরি জাতীয় হার্বস ভেষজ উপাদান চিবালেও মুখের দুর্গন্ধের সমস্যা কমে যায়।

৫) গাজর, আপেল জাতীয় ফল নিয়মিত খেলেও দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী জীবাণু মুখে বাসা বাঁধতে পারে না।

৬) জিভ সবসময় পরিষ্কার রাখতে হবে।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য