যেভাবে রমজানের প্রস্তুতি নেবেন

রমজান

যেভাবে রমজানের প্রস্তুতি নেবেন

অনলাইন ডেস্ক

কড়া নাড়ছে পবিত্র রমজান। এ মাস ইবাদত ও সংযমের মাস। এই মাসে নিজেকে পরিশুদ্ধ করতে হলে একটু আগেভাগেই প্রস্তুতি গ্রহণ করা চাই। যেসব কাজের মাধ্যমে আমরা নিজেদের পবিত্র রমজান মাসের জন্য প্রস্তুত করতে পারি, তার একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা নিচে দেওয়া হলো।

একনিষ্ঠভাবে তওবা করা: রমজান গুনাহ মাফ করানোর মাস। তাই এখন থেকে একনিষ্ঠভাবে আল্লাহর পথে ফিরে না এলে রমজানে তওবা নসিব নাও হতে পারে। আল্লাহ তাআলা বলেছেন, ‘আর হে মুমিনগণ, তোমরা সবাই আল্লাহর কাছে তওবা করো; যাতে সফলকাম হতে পারো। ’ (সুরা নুর: ৩১)।

 
 
দোয়া করা: মহানবী (সা.) রজব মাসের চাঁদ উদিত হওয়ার পর থেকেই রমজানের জন্য প্রস্তুত হতেন এবং মহান আল্লাহর কাছে রমজান পর্যন্ত বেঁচে থাকার আকুতি জানাতেন। বলতেন, ‘হে আল্লাহ আমাদের জন্য রজব ও শাবান মাসে বরকত দিন এবং আমাদের রমজান পর্যন্ত বাঁচিয়ে রাখুন। ’ 
(জামিউস সাগির) 

রমজানের আগমনে খুশি হওয়া: রমজান মাস একজন মুসলিমের প্রতি আল্লাহ তাআলার বিশেষ নিয়ামত। আর আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘বলো, এটি আল্লাহর অনুগ্রহে ও তাঁর দয়ায়। সুতরাং এতে তারা আনন্দিত হোক। এটি তারা যা সঞ্চয় করে রাখে, তা থেকে উত্তম। ’ (সুরা ইউনুস: ৫৮) 

কাজা রোজা আদায় করে নেওয়া: আবু সালামা বলেন, আমি আয়েশা (রা.)-কে বলতে শুনেছি, ‘আমার ওপর গত রমজানের রোজা বাকি থাকলে শাবান মাসে ছাড়া আমি তা আদায় করতে পারতাম না। ’ (বুখারি: ১৮৪৯)  

নফল রোজা রাখা: আয়েশা (রা.) বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে রমজান ছাড়া অন্য কোনো মাসের গোটা অংশ রোজা পালন করতে দেখিনি এবং শাবান ছাড়া অন্য কোনো মাসে অধিক সিয়াম পালন করতে দেখিনি। ’ (বুখারি: ১৮৬৮) 

রোজার প্রয়োজনীয় জিজ্ঞাসাগুলো নির্ভরযোগ্য আলেম বা গ্রহণযোগ্য বই-পুস্তক থেকে জেনে নেওয়া।  

রমজানে নিজেদের ব্যস্ততা কমিয়ে আনার জন্য এখন থেকে পরিকল্পনা করা এবং একটি উল্লেখযোগ্য সময় ইবাদত-বন্দেগিতে কাটানোর বন্দোবস্ত করা।

news24bd.tv/আইএএম

এই রকম আরও টপিক