শিক্ষা সফরের বাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মদ্যপান, দুই শিক্ষক বরখাস্ত

শিক্ষা সফরের বাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মদ্যপান, দুই শিক্ষক বরখাস্ত

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

মাদারীপুরের শিবচরে শিক্ষা সফরের বাসে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মদ্যপানের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি।  বরখাস্তকৃত শিক্ষকদ্বয় হলেন সহকারী শিক্ষক ওয়ালিদ হোসেন ও আল-নোমান।  

শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল্লাহ আল মামুন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, শিবচরের বন্দরখোলা ইউনিয়নের শিকদার হাট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গত শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) শিক্ষা সফরে যান বিদ্যালয়ের ৪১ জন শিক্ষার্থী ও ১৬ জন শিক্ষক। শিক্ষা সফরের উদ্দেশে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও যাওয়ার সময় পথিমধ্যে বাসের মধ্যেই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মদ্যপান করে।  

এ সময় শিক্ষকদেরও শিক্ষার্থীদের সাথে মদের বোতলসহ মদ্যপান করতে দেখা গেছে। এমন দৃশ্য সম্বলিত একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হলে এলাকায় সমালোচনার ঝড় উঠে।

ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো.ওয়ালিদ হোসেনের পাশে একজনের হাতে একটি বিদেশি মদের বোতল। মদ ঢালার চেষ্টা করছেন তারা। এছাড়াও মদের বোতল হাতে শিক্ষার্থীদের উল্লাস করতে দেখা গেছে। গানের তালে তালে নাচছে শিক্ষার্থীরা। বাসের মধ্যে একাধিক মদের বোতল ছিল বলে জানা গেছে। বাস ছাড়ার পর মদপানের এ ঘটনা ঘটে। এ সময় কয়েকজন শিক্ষকও শিক্ষার্থীদের সাথে মদ জাতীয় ‌‌‌‘পানীয়’ পান করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।  

এ ঘটনায় সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির এক জরুরি সভায় প্রাথমিক ভাবে অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে ম্যানেজিং কমিটি। সন্ধ্যায় তাদেরকে সাময়িক বরখাস্তের চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আলাউদ্দিন শিকদার।

তিনি বলেন, ‘ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত থাকার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় আমরা দুই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছি। কালকের মধ্যে সংশ্লিষ্ট দফতরে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হবে। ’

এদিকে, বরখাস্ত হওয়ার পর অভিযুক্ত শিক্ষকরা রা বক্তব্য দিতে রাজি হয়নি।

শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ‘এ ঘটনায় ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এবং দুইজন শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ’

news24bd.tv/কেআই

পাঠকপ্রিয়