হিজলায় শাম্মীর বক্তব্যের পর এলাকাবাসীর প্রশ্ন, তাহলে এতো ভোট পেলেন কীভাবে পঙ্কজ

পঙ্কজ নাথ ও শাম্মী আহমেদ

পঙ্কজ নাথ ও শাম্মী আহমেদের দ্বৈরথ

হিজলায় শাম্মীর বক্তব্যের পর এলাকাবাসীর প্রশ্ন, তাহলে এতো ভোট পেলেন কীভাবে পঙ্কজ

অনলাইন ডেস্ক

গত শুক্রবার ( ৯ মার্চ) বিকেলে জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আহমেদকে হিজলায় গণসংবর্ধনা দিয়েছে দলীয় নেতাকর্মীরা। নারী সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণের পর এই প্রথম তিনি তাঁর নিজ নির্বাচনি এলাকায় ফেরেন। হিজলা উপজেলা পরিষদ মাঠে বিকাল ৪টায় এই গণসংবর্ধনায় নেতাকর্মী যোগ দেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় নবনির্বাচিত এমপি পঙ্কজ নাথের নাম উল্লেখ না করে শাম্মী আহমেদ বলেন, হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জে আর কোনো প্রতিহিংসার রাজনীতি চলবে না।

ভোটাররা অংশগ্রহণই করেননি। কম ভোট পড়েছে। এখন থেকে দলের নাম ভাঙিয়ে, ভুয়া কমিটির পরিচয় দিয়ে কেউ জনগণকে কষ্ট দিলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

তার এ বক্তব্যে দলের মধ্যেই তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের এক স্থানীয় নেতা বলেন, ‘কম ভোট যদি কাস্টিং হয় তবে পঙ্কজ নাথ এতো ভোট কিভাবে পেলেন? এতো ভোট পাওয়ার পরও ভোট কাস্টিং হয়না বলা তো দলের বিরুদ্ধেই শাম্মী আহমেদের বক্তব্য যায়। কারণ ভোটার না গেলে কি কারচুপি হয়েছে নির্বাচনে সেটাই বলতে চান তিনি?’

দলের কয়েকজন নেতা-কর্মী বলেন, পঙ্কজ নাথ এলাকার জন্য কাজ করেছেন। এলাকার মানুষের পাশে ছিলেন। উড়ে এস জুড়ে বসেননি। তাকেই তো ভোট দিবে মানুষ। এছাড়া শাম্মী আহমেদ এরকম কথা বলে দলের মধ্যে বিভক্তি তৈরি করতে চাচ্ছেন ।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছিলেন শাম্মী আহমেদ। দলীয় মনোনয়নবঞ্চিত হয়ে সেখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন সংসদ সদস্য পংকজ নাথ। কিন্তু দ্বৈত নাগরিকত্ব-সংক্রান্ত জটিলতায় শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি শাম্মী। ওই আসনে আবার সংসদ সদস্য হয়েছেন পংকজ নাথ। মেহেন্দিগঞ্জ-হিজলার দুইবারের সংসদ সদস্য পঙ্কজ নাথ।

উল্লেখ্য, পংকজ নাথ এবারের নির্বাচনে ভোট পেয়েছেন ১ লাখ ৬১ হাজার ৪৬৯। নিকটতম প্রার্থী জাতীয় পার্টি মিজানুর রহমান ভোট পেয়েছেন, ৭ হাজার ৬শ ৭৫ ভোট।  দ্বৈত নাগরিকত্বের কারণে শাম্মী দলীয় মনোনয়ন পেলেও নির্বাচন করতে পারেননি। পরে তিনি সংরক্ষিত নারী আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার আলিমাবাদ ইউনিয়নে জন্ম নেওয়া পঙ্কজ দেবনাথের বর্তমান বাড়ি পৌর এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ডের সোনামুখী গ্রামের উত্তর বাজারে। এখানেই তার বেড়ে উঠা। ছাত্রজীবনেই তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত হন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পর তিনি ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) নির্বাচিত হন। পরে তিনি সংগঠনের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি টানা ১৭ বছর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-৪ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। রাজনীতির পাশাপাশি তিনি পরিবহন ব্যবসার সঙ্গেও যুক্ত।  অন্যদিকে শাম্মী আহমেদ ২০১৭ সাল থেকে আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার বাবা  মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য মহিউদ্দিন আহমেদ বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। সেই উত্তরাধিকার সূত্রে এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেও দ্বৈত নাগরিকত্ব থাকায় নির্বাচন করতে পারেননি। তিনি অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক ও ভোটারও।

নির্বাচনের আগে পঙ্কজ নাথ শাম্মীর বিরুদ্ধে রিটার্নিং কার্যালয়ে স্মার্ট কার্ডের তথ্য গোপন করে পাসপোর্ট করা, অস্ট্রেলিয়ার ভোটার হওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ করেন।  অস্ট্রেলিয়ার ভোটার হিসেবে সেখানকার ওয়েবসাইট থেকে শাম্মী আহম্মদের তথ্যও উপস্থাপন করেন পঙ্কজ।

শাম্মী আহমেদ শুক্রবার সকালে বরিশালে আসেন। দুপুরে তিনি সড়কপথে হিজলায় যান।

news24bd.tv/ডিডি