ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে নেটওয়ার্ক মজবুত করার তাগিদ মোদির

শিলিগুড়ির জনসভায় বক্তৃতা দিচ্ছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (ছবি: এনডিটিভি)

ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে নেটওয়ার্ক মজবুত করার তাগিদ মোদির

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সরব রয়েছে দেশটির গোটা রাজনৈতিক অঙ্গণ। দেশটির ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার তৎপর রয়েছে দেশব্যাপী লোকসভা করতে। বিজেপির হয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পশ্চিমবঙ্গে ইতোমধ্যে চারবার জনসভা করেছেন। এই নিয়ে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে নয়দিনের মধ্যে চারবার জনসভার রেকর্ড গড়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

শনিবার (৯ মার্চ) শিলিগুড়িতে জনসভার পাশাপাশি বাংলাদেশের সাথে উত্তরবঙ্গের একগুচ্ছ রেল এবং সড়ক পথের প্রকল্পের উদ্বোধন করেন মোদি।
এ সময় তিনি বলেন, নিউ জলপাইগুড়ি থেকে ঢাকা অবধি মিতালী এক্সপ্রেস চলছে। আমরা বাংলাদেশের সঙ্গে মিলে রাধিকাপুর স্টেশনের মাধ্যমে কানেক্টিভিটি বাড়াতে চাচ্ছি।

আমাদের মধ্যে নেটওয়ার্ক যত মজবুত হবে যোগাযোগ তত বাড়বে।

এতে বাংলাদেশের অর্থ ব্যবস্থার উন্নতি হবে। এছাড়াও উত্তরবঙ্গের পর্যটন ক্ষেত্রও বিকশিত হবে।
এ সময় তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের সমালোচনা করে বলেন, গরিবদের চুলা যাতে বন্ধ না হয়য় সেজন্য গ্যাস সিলিন্ডারের দাম কমানো হয়েছে। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের রেশন ব্যবস্থা চালু আছে। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের সেই রেশন প্রকল্প মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পশ্চিমবঙ্গে ঢুকতে দেয় না।

তিনি আরও বলেন, আমরা ১০ বছরে ২৫ কোটি গরিবের উন্নতি করেছি। কেন্দ্রীয় রেশনের পাশাপাশি সাধারণের জন্য চিকিৎসা ব্যবস্থা বিনামূল্যে রাখা হয়েছে। কিন্তু তৃণমূল তা চালু করতে দেয়নি। দিল্লি থেকে গরিবদের জন্য পাঠানো টাকা তৃণমূল সরকার ভুয়া জব কার্ড বানিয়ে তুলে নিয়েছে। টিএমসি আপনাদের কষ্টের কোনো মূল্য দেয় না।

আরও পড়ুন: লোকসভা নির্বাচনের আগে ভারতের নির্বাচন কমিশনারের পদত্যাগ

একই দিন সকালে অরুণাচল প্রদেশ হয়ে আসামের কাজিরাঙ্গা হয়ে শিলিগুড়িতে আসেন নরেন্দ্র মোদি। এখানের জনসভা শেষে উত্তরপ্রদেশের কাশি যাওয়ার কথা রয়েছে তার।

news24bd.tv/SC  

পাঠকপ্রিয়