প্রিজাইডিং অফিসারের মামলায় সহকারী প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসার আটক

প্রতীকী ছবি

প্রিজাইডিং অফিসারের মামলায় সহকারী প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসার আটক

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

পঞ্চগড়ের বোদায় অবৈধভাবে ব্যালট পেপারে সিল মেরে ভোট বাক্সে ঢুকানোর অপরাধে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার বিকাশ চন্দ্র সেন (৪১) ও পোলিং অফিসার মো.একরামুল হককে (৩৬) আটক করা হয়েছে।

আজ রোববার (১০ মার্চ) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয় বলে জানা যায়।

বিকাশ চন্দ্র সেন কুড়িগ্রাম নাগেশ্বরী সেনপাড়া এলাকার শ্যামল কুমার সেনের ছেলে। তিনি বোদা উপজেলা সমবায় অফিসের সহকারী পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত।

একরামুল হক পঞ্চগড়ের পুরাডাঙ্গা এলাকার নিজাম উদ্দিনের ছেলে। তিনি বোদা উপজেলার পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন অফিসের হিসাব কর্মকর্তা।

জানা যায়, শনিবার দেশের বিভিন্ন এলাকার সঙ্গে একযোগে স্থানীয় সরকার ইউনিয়ন পরিষদ পঞ্চগড় সদর ও বোদা উপজেলার দুইটি ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে কমলাপুকুরি কাজলদিঘী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ছিলেন বিকাশ চন্দ্র সেন।

আর পোলিং অফিসার ছিলেন একরামুল হক। তারা ভোট প্রয়োগের শেষ সময়ে হেরে যাওয়া প্রার্থী আব্দুর রহিমের সঙ্গে অর্থের বিনিময়ে যোগসাজশ করে নিজেরাই ব্যালট পেপারের টিউবওয়েল প্রতীকে সিল দিয়ে বক্সে ভরার সময় মোরগ প্রতীক প্রার্থীর এজেন্ট মোছা. আছিয়া খাতুন দেখে ফেলেন।

পরে নির্বাহী অফিসার ও প্রিজাইডিং অফিসারের সহায়তায় তাদের দুজনকে আটক করে পুলিশে দেয়া হয়। রোববার দুজনকে আসামি করে প্রিজাইডিং অফিসার ও বোদা উপজেলার সমবায় কর্মকর্তা এ এফ এম জাকির হোসেন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। পরে বোদা থানা পুলিশ তাদের আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে বোদা থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, শনিবার রাতেই বোদা থানায় একটি মামলা করা হয়। রোববার সকালে আদালতের মাধ্যমে আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

news24bd.tv/SHS  

পাঠকপ্রিয়