মেসি ভক্তদের জন্য দুঃসংবাদ! 

মেসি ভক্তদের জন্য দুঃসংবাদ! 

মেসি ভক্তদের জন্য দুঃসংবাদ! 

অনলাইন ডেস্ক

আসছে মার্চ উইন্ডোতে আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে যুক্তরাষ্ট্র সফরে কোনো ম্যাচ খেলতে পারবেন না লিওনেল মেসি। সংবাদকর্মী গাস্তন এদুলের বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করেছে আর্জেন্টাইন ফুটবল বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম মুন্ডোআলবিসেলেস্তে। কনকাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপে ন্যাশভিলের বিপক্ষে ইনজুরিতে পড়েছিলেন মেসি।

গত বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) ন্যাশভিলের বিপক্ষে দুর্দান্ত শুরু করেও ম্যাচের মাত্র ৫০ মিনিটে মাঠ ছেড়েছিলেন মেসি।

সেই ম্যাচ জিতে কনকাকাফ চ্যাম্পিয়ন্স কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল ঠিকই নিশ্চিত করেছে ইন্টার ময়ামি, তবে বড় ক্ষতিটা করে গেছে মেসির!

 হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট নিয়ে লিওর মাঠ ছাড়ার পর থেকেই গুঞ্জন শুরু হয় ইনজুরির ব্যাপকতা নিয়ে। সতীর্থ জর্ডি আলবা অবশ্য নিশ্চিত করেছিলেন চোট গুরুতর নয়। তবে মেজর লিগ সকারে ডিসি ইউনাইটেডের বিপক্ষে ম্যাচে খেলতে পারেননি মেসি।
 
সুপারস্টারের ইনজুরি নিয়ে রাখ ঢাক করা হলেও খবর প্রকাশ হয়েছে আর্জেন্টিনার গণমাধ্যমে।

দেশটির বিখ্যাত সংবাদকর্মী গাস্তন এদুলের বরাত দিয়ে মুন্ডো আলবিসেলেস্তে জানিয়েছে, মেসিকে পাওয়া যাবে না মার্চ উইন্ডোর দুটো ফ্রেল্ডলি ম্যাচে। তাই তাকে বাদ দিয়েই পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন লিওনেল স্ক্যালোনি।
 
তবে মেসির ইনজুরি নিয়ে কোনো বিবৃতি দেয়নি আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। এর পেছনে অবশ্য কারণও রয়েছে। শুধু মেসি খেলবেন বলে কোটি কোটি ডলার লগ্নি করে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানগুলো। মেসি মাঠে না নামলে লোকসানের মুখে পড়তে হয় তাদের। এ জন্যই বিষয়টি খোলাসা করছে না এএফএ।
 
ইন্টার মায়ামির হয়ে প্রাক মৌসুম প্রীতি ম্যাচে হংকংয়ে খেলেননি মেসি। জাপানে গিয়ে খেললেও মাঠে ছিলেন না পুরো সময়। এরপরই লঙ্কাকাণ্ড বেঁধে যায় ফুটবল দুনিয়ায়। আর্জেন্টিনার চীন সফর বাতিল করে আয়োজকরা। সেখানে নাইজেরিয়া এবং আইভরি কোস্টের বিপক্ষে এই মার্চ উইন্ডোতেই দুটো ম্যাচ খেলার কথা ছিল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের।
 
মেসি না খেললেও এবার অবশ্য ম্যাচ বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা নেই। এরই মধ্যে টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। ভক্তরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের পায়ের জাদুতে মেতে ওঠার। শেষ পর্যন্ত মেসি খেলতে না পারলে নিশ্চিতভাবেই রং হারাবে সব আনুষ্ঠানিকতায়। ফিফা ফ্রেন্ডলিতে ২৩ মার্চ এল সালভাদোর এবং ২৭ মার্চ কোস্টারিকার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা।
news24bd.tv/aa

পাঠকপ্রিয়