শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ১৬ ঘন্টা ০২ মিনিট আগে

সিডনিতে জমকালো বিজয় দিবস কনসার্ট

মাসুম বিল্লাহ অস্ট্রেলিয়া থেকে

সিডনিতে জমকালো বিজয় দিবস কনসার্ট

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে অস্ট্রেলিয়ায় দীর্ঘদিন পর অনুষ্ঠিত হয়েছে মেগা বিজয় দিবস কনসার্ট। সিডনি পরিণত হয়েছিল এক টুকরো বাংলাদেশে। জনপ্রিয় ব্যান্ড দল সোলস, ওয়ারফেইজ, নতুন প্রজন্মের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ঐশী, মেহেদি হাসান, স্হানীয় ব্যান্ড যোদ্ধা, কৌতুক অভিনেতা মো. জামিল হোসেন, আবু হেনা রনি, ডিজে রাফসান, ডিজে সায়েম, ডিজে খানসহ আরো অনেকের গান, কৌতুকের মুগ্ধতার রেশ ছড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া। সুরের মূর্ছনায় ছড়িয়ে শিল্পীরা দর্শকদের এক উপভোগ্য রাত উপহার দিলেন। পরিবার-পরিজন আর বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে তাই নিজেদের মতো করে কনসার্টস্থলে মজে থাকলেন গ্যালারি ভর্তি দর্শক।

সিডনির বেলমোরের বুলডগ স্টেডিয়ামে গ্রিনফিল্ড ইন্টারটেইনমেন্ট এর উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় বিজয় দিবস কনসার্ট। বিকেল থেকে হাজার হাজার মানুষ সারি বেঁধে উৎসবস্থলে ঢুকতে থাকেন। প্রায় মধ্যরাত পর্যন্ত বিনোদন প্রিয় এসব মানুষ মনের আনন্দে উপভোগ করেন শিল্পীদের নান্দনিক সব পরিবেশনা। তানিসা ফেরদৌসের উপস্হাপনায় শুরুতেই মঞ্চে আসে ল্যাকেম্বা বাংলা স্কুল ও স্হানীয় শিশু শিল্পীরা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও বিজয় দিবস  নিয়ে তাদের পরিবেশনা সকলকে মুগ্ধ করে। ডিজে সায়েম, ডিজে খান, স্হানীয় ব্যান্ড যোদ্ধা, মেহেদি হাসানের সুরের ঝংকারে উল্লাসে মেতে ওঠে গান প্রেমীরা। করতালি আর চিৎকারে তারা স্বাগত জানায় তাদের। আসতে থাকে আরো গান গাওয়ার আবেদন। এরই মাঝে মঞ্চে আসেন মীরাক্কেল তারকা জামিল হোসেন। চমৎকার উপস্থাপনা আর কৌতুক দিয়ে তিনি জয় করেছেন উপস্হিত দর্শকদের মন। তার আহবানে সাড়া দিয়ে মঞ্চ আসেন নতুন প্রজন্মের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ফাতিমা তুয যাহরা ঐশী। ঐশী আযম খানের বাংলাদেশ গান দিয়ে ফোক গানের সুর তোলেন। এরপর একে একে নেচে গেয়ে দর্শক শোনান মাঁঝি পাল তুলে দো, আসবার কালে, যে জন প্রেমের ভাব জানে না, পবন দাস বাউলের ‘দিল কি দয়া হয় না’, ‘দিল্লিতে নিজাম উদ্দিন আউলিয়া’ গানের তালে তালে দর্শকের উন্মাদনা ছিল চোখে পড়ার মতো।

এরপর হাজির হন মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার সিজন ৬-এর চ্যাম্পিয়ন স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান আবু হেনা রনি। একের পর এক রনির কৌতুক শুনে হাসিতে ভেঙে পড়ে দর্শকেরা। কৌতুকের মাঝে দর্শকদের উদ্দেশে বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া এবং প্রবাসীদের সংসার নিয়ে নানা কথা বলেন তিনি। রনির কৌতুকের রেশ কাটতে না কাটতে মঞ্চে আমন্ত্রণ জানানো হয় ব্যান্ড দল সোলসকে। তাদের আমন্ত্রণে দর্শকদের আনন্দ আর দেখে কে? তাদের বাঁধ ভাঙ্গা উচ্ছ্বাসে আয়োজকরা মঞ্চের সামনে জায়গা করে দিতে বাধ্য হন। ‘এ এমন পরিচয়’ কিংবা কেন ‘এই নিঃস্বঙ্গতা’ ‘মন শুধু মন ছুঁয়েছে’, ‘দেখা হবে বন্ধু’, গান যখন সোলস ব্যান্ড গাইছে তখন স্টেডিয়ামের গানপ্রেমীরা মেতে উঠেছে উল্লাসে।

উপস্থাপিকার মুখে প্রিয় ব্যান্ড ওয়ারফেইজ নাম শোনার সঙ্গে সঙ্গে পুরো স্টেডিয়াম যেন পরিণত হয় এক উল্লাসের নগরীতে। মহারাজ, তুমি শুধু ভালোবাসো আমাকে, হে সমাজ সহ আরো কিছু হার্ড রক আর হেভি মেটাল ধাঁচের গানে নেচে গেয়ে ওঠে পুরো স্টেডিয়াম।

১১টা ৪০ মিনিটে আয়োজন শেষ হলেও আনন্দের রেশ নিয়ে বাড়ি ফিরে যান গানপ্রেমীরা। সবাই মুখে একটাই কথা সত্যিকারের বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান উপহার দিল আয়োজকরা। যা সকলের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকা উচিৎ। এই জন্য বাংলাদেশ থেকে আগত শিল্পীদের পাশাপাশি বিজয় দিবস কনসার্টের আয়োজক গ্রিনফিল্ড এন্টারটেইনমেন্টের এনামুল হক, ফয়সাল আজাদ, মিরাজ হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান প্রবাসী বাংলাদেশিরা। 

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/মাসুম/তৌহিদ)

মন্তব্য