বান্দরবানের তিন উপজেলা ভ্রমণে প্রশাসনের নিরুৎসাহ

বান্দরবানের তিন উপজেলা ভ্রমণে প্রশাসনের নিরুৎসাহ

অনলাইন ডেস্ক

ব্যাংক ডাকাতি, অস্ত্র ও অর্থ লুটের ঘটনায় বান্দরবানে সশস্ত্র সংগঠন কেএনএফের বিরুদ্ধে যৌথ বাহিনী এ অভিযান চালাচ্ছে। এমন সময়ে তিন উপজেলা রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়িতে সবধরনের পর্যটকদের ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

বান্দরবানের রুমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ দিদারুল আলম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ বার্তা দেওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যৌথ বাহিনীর অভিযান পরিচালনাকালে কোনো হোটেলে পর্যটকদের রুম ভাড়া দেওয়া যাবে না।

কোনো ট্যুরিস্ট গাইড ভ্রমণকারীদের কোনো পর্যটনকেন্দ্রে নিয়ে যাবে না। কোনো পর্যটনকেন্দ্রে পর্যটকবাহী জিপ গাড়ি নিয়ে যাওয়া যাবে না। যৌথ অভিযান পরিচালনাকালে নৌপথে পর্যটকদের কোনো পর্যটনকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া যাবে না।

জেলা আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও সমন্বয় সংক্রান্ত কমিটির সিদ্ধান্তের আলোকে প্রয়োজনীয় এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

হোটেল-মোটেল মালিক সমিতি, রুমা পর্যটক গাইড অ্যাসোসিয়েশন, জিপ ও মাহেন্দ্র মালিক সমিতি, বোট মালিক সমিতিকে এসব নির্দেশনা মেনে চলার জন্য বিজ্ঞপ্তিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে বান্দরবানের জেলা প্রশাসক শাহ্ মোজাহিদ উদ্দিন বলেন, বান্দরবানে অসংখ্য পর্যটনকেন্দ্র রয়েছে। রুমা, থানচি আর রোয়াংছড়ি ছাড়া বান্দরবানের অন্যান্য চারটি উপজেলায় অসংখ্য পর্যটনকেন্দ্র রয়েছে, সেগেুলোতে কোনো সমস্যা নেই।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, আমরা পর্যটকদের বান্দরবান ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেইনি, শুধু তিন উপজেলায় (রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়ি) যৌথ বাহিনীর সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান পরিচালনার জন্য ওইসব এলাকার পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে পর্যটকদের নিরাপত্তার কারণে সাময়িকভাবে ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করছি। তিন উপজেলা ছাড়া অন্যান্য উপজেলাগুলোর সব পর্যটনকেন্দ্রে পর্যটকরা স্বাচ্ছন্দ্যে ঘুরে বেড়াতে পারবেন বলে তিনি আশ্বস্ত করেন।

news24bd.tv/SHS

পাঠকপ্রিয়