গলা কাটা মরদেহ ফেলে পালাল দুর্বৃত্তরা

গলা কাটা মরদেহ ফেলে পালাল দুর্বৃত্তরা

সামিউল আলিম, গোপালগঞ্জ

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় অশোক মন্ডল (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। আজ সোমবার ( ২২ এপ্রিল) ভোর রাত তিনটার দিকে কোটালীপাড়া উপজেলার কুশলা ইউনিয়নের জাঠিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ফিরোজ আলম হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত অশোক মন্ডল কোটালীপাড়া উপজেলার কুশলা ইউনিয়নের জাঠিয়া গ্রামের কালিপদ মন্ডলের ছেলে।

কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ফিরোজ আলম জানান, জাঠিয়া গ্রামের নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিলো অশোক। এসময় ছুরি দিয়ে গলা কেটে অশোকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরে অশোকের ছোট ভাই অসীম বিষয়টি টের পেয়ে চিৎকার দিলে দুর্বৃত্তরা মরদেহ ঘরের বাইরে রেখে পালিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকাণ্ড নিয়ে ইত্যেমধ্যে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। খুব শীঘ্রই এই হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণ উদঘাটন করা সম্ভব হবে বলেও জানান ওসি।  

অশোক মন্ডলের মা উর্মিলা মন্ডল বলেন, ঘটনার রাতে আমি ১০টার দিকে ঘুমিয়ে পড়ি। সে সময় আমার বড় ছেলে অশোক ও ছোট ছেলে অসীম মন্ডলকে টিভি দেখতে দেখেছি। এরপর হঠাৎ ছোট ছেলে অসীম মন্ডললের চিৎকারে আমার ঘুম ভেঙ্গে যায়। তখন ঘরের বারেন্দায় অশোকের গলা কাটা শরীরটাকে ধরে আমার ছোট ছেলে অসীম চিৎকার করছিল। এরপর আমরা অশোককে হাসপাতালে নেওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে ঘর থেকে বের হলেই সে মারা যায়।

তারাশী গ্রামের ব্যবসায়ী হারিচাঁদ মন্ডল বলেন, অশোক মন্ডল সম্পর্কে আমার চাচাতো ভাই হয়। সে একজন সহজ সরল প্রকৃতির মানুষ ছিল। তবে সে মাঝে মাঝে একটু নেশা করতো। আমার জানামতে তার কোনো শক্র নেই।

news24bd.tv/তৌহিদ

পাঠকপ্রিয়