মিয়ানমারে সামরিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দুই রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

গ্রেপ্তার হওয়া দুই যুবক।

মিয়ানমারে সামরিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দুই রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

মিয়ানমারে সামরিক প্রশিক্ষণ নেয়া দুইজন রোহিঙ্গা যুবককে দেশটির সেনাবাহিনীর রাইফেলের গুলিসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের নয়াপাড়া এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা জোনের অতিরিক্ত ডিআইজি খাইরুল আলম।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো– কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা মো. ইসলামের ছেলে কেফায়েত উল্লাহ (১৯) ও নোয়াখালীর ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা আব্দুস সালামের ছেলে আনোয়ার মোস্তফা (১৮)।

হাইওয়ে পুলিশ জানায়, টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নয়াপাড়া এলাকায় শনিবার কক্সবাজারগামী পায়রা সার্ভিসের বাসে তল্লাশি চালানোর সময় দুই যুবককে সন্দেহজনক মনে হলে তাদের দেহ তল্লাশি করে কেফায়েতের কোমরে বাঁধা কালো রঙের ব্যাগে রাইফেলের গুলি পাওয়া যায়। পরে কেফায়েত ও তার সহযাত্রী আনোয়ারকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ আরও জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা মিয়ানমার থেকে এসব গুলি কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের উদ্দেশে আনা হচ্ছিল বলে স্বীকার করেছে। ১৯ এপ্রিল তারা দালালের মাধ্যমে মিয়ানমারের মংডু জেলায় জান্তা বাহিনীর বুচিডং ক্যাম্পে যায়।

সেখানে তারা মিয়ানমার সেনাবাহিনীর কাছ থেকে জি-৩ রাইফেল চালানোর প্রশিক্ষণ লাভ করে। সেনাবাহিনীর পক্ষে বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার উদ্দেশ্যে তাদেরকে এই প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে।

অতিরিক্ত ডিআইজি খাইরুল আলম জানান, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে সাত দিন থাকার পর অতিরিক্ত গরম ও খাদ্যকষ্টে সেখান থেকে এসব গুলি নিয়ে দুই রোহিঙ্গারা সীমান্ত পার হয়ে পুনরায় বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এ ঘটনায় কক্সবাজারের টেকনাফ থানায় অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে।

news24bd.tv/ab

পাঠকপ্রিয়