শিক্ষিকার উত্যক্তকারীকে ধরতে গিয়ে পুলিশ হামলার শিকার 

সংগৃহীত ছবি

শিক্ষিকার উত্যক্তকারীকে ধরতে গিয়ে পুলিশ হামলার শিকার 

অনলাইন ডেস্ক

শিক্ষিকাকে উত্যক্ত করাকে কেন্দ্র্র করে বোচাগঞ্জে পুলিশের উপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে দুইজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে ১১ জনকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।  

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকাল ১০টার দিকে বোচাগঞ্জের ইশানিয়া ইউনিয়নের জনৈক মহিলা কাহারোলের ডাবোর ইউপির একটি মিশন স্কুলের শিক্ষিকাকে পথিমধ্যে ট্রাক্টরের হেলপার উত্যক্ত করে।

পরে সোমবার বিকালের দিকে ঐ ট্রাক্টরের মালিক কাহারোল থানার চামদুয়ারি গ্রামের মো. জিয়ারুল ইসলামকে ফোন করে ইশানিয়া গ্রামের স্কুল মাঠে ডেকে এনে আটকে রেখে ঐ শিক্ষিকার অভিভাবক ও এলাকাবাসী মারধর করে।  

পরে বোচাগঞ্জ পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আটককৃত জিয়ারুল ইসলামকে পুলিশ হেফাজতে নিতে চাইলে উত্তেজিত জনতা পুলিশের উপর হামলা ও পুলিশ ভ্যান ভাঙচুর করলে ড্রাইভার মো. মোস্তাছিন আলম তুহিন আহত হয়। এসময় অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে বোচাগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পুলিশের ড্রাইভার মোস্তাছিনকে দিনাজপুরে প্রেরণ করা হয়।

সন্ধ্যায় বোচাগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবু বক্কর সিদ্দিক রাসেল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ৯৯৯ এ খবর পেয়ে সেখানে আমরা যাই।

এ সময় উত্তেজিত হয়ে হামলা করলে আমাদের গাড়ীর ড্রাইভার ও গাড়ি ভাঙচুর করে। পরে আহত পুলিশ সদস্যকে উন্নত চিকিৎসা দিতে হাসপাতালে ভতি করা হয়েছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে ১১জনকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।  

news24bd.tv/কেআই

পাঠকপ্রিয়