রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ৪৩ মিনিট আগে

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে সাংবাদিক

বেলাল রিজভী, মাদরীপুর প্রতিনিধি

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে সাংবাদিক

দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার টেকেরহাট সংবাদদাতা ও পত্রিকার এজেন্ট খোন্দকার আবদুল মতিন অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব হারিয়েছেন। শুক্রবার ঢাকা থেকে টেকেরহাট ফেরার পথে শিমুলিয়াঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শনিবার দুপুরে জ্ঞান ফিরলে এ ঘটনা জানা যায়।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, খোন্দকার আবদুল মতিন শুক্রবার সকালের দিকে ঢাকা থেকে গ্রেড বিক্রমপুর এর একটি যাত্রীবাহী বাসে টেকেরহাট আসছিলেন। পথিমধ্যে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা তার সিটে বসে সখ্যতা গড়ে তোলে এবং তাদের বাড়ি মাদারীপুর শহরের ইটেরপুল বলে জানায়। আলাপের এক পর্যায়ে বিস্কুটের সঙ্গে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে অজ্ঞান করে ৩০ হাজার টাকা মোবাইল সেটসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। শিমুলিয়াঘাটে বাসের সকল যাত্রী নেমে গেলেও খোন্দকার আবদুল মতিন তার সিটে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকেন। এসময় বাসের হেলপার ও কন্ট্রাক্টর তাকে বাস থেকে নামিয়ে শিমুলিয়াঘাটের ইলিশ বাস কাউন্টারের পাশে ফেলে রেখে যায়।
পরে স্থানীয় ঘাটের এক ফল ব্যবসায়ী গুরুতর অবস্থা দেখে পকেটে কার্ড পেয়ে মোবাইলে মাদারীপুর জেলা ইত্তেফাকের সংবাদদাতা শাহজাহান খানসহ বিভিন্ন স্থানে জানালে খোন্দকার আবদুল মতিনের পরিবার এ ঘটনা জানতে পারেন।

পরে লোহজং, মুকসুদপুর ও রাজৈর থানাকে বিষয়টি জানালে লৌহজং থানার পুলিশ এসে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে লোহজং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেকেক্স ভর্তি করে। পরে পরিবারের লোকজন গিয়ে লোহজং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। শনিবার দুপুরের দিকে তার জ্ঞান ফিরলেও তিনি ঠিকভাবে কথা বলতে পারছেন না।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/বেলাল/তৌহিদ)

মন্তব্য