মিয়ানমারে ফেরত যাচ্ছেন ১৩৪ বিজিপি-সেনা

ফাইল ছবি

মিয়ানমারে ফেরত যাচ্ছেন ১৩৪ বিজিপি-সেনা

অনলাইন ডেস্ক

রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের ১৩৪ বিজিপি ও সেনা সদস্যকে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। এছাড়া মিয়ানমারে কারাভোগ শেষে দেশে ফেরত আসছেন ৪৫ বাংলাদেশি।

রোববার সকাল ৭টা ৫ মিনিটে কক্সবাজার শহরের বাঁকখালী নদীর মোহনা সংলগ্ন নুনিয়াছড়ার বিআইডব্লিটিএ এর জেটি ঘাটে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে বিজিপি সদস্যদের আনা হয়েছে।

পরে মিয়ানমার সরকারি বাহিনীর এসব সদস্যদের টাগবোটে করে গভীর সাগরে নিয়ে যাওয়া হবে।

সেখানে অবস্থানকারী মিয়ানমারের নৌবাহিনীর বড় একটি জাহাজে করে তারা স্বদেশে ফিরে যাবেন।

এর আগে শনিবার সকালে মিয়ানমার নৌবাহিনীর জাহাজে করে দেশটির একটি প্রতিনিধি দল কক্সবাজার পৌঁছান। পরে দলটির সদস্যরা টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা উচ্চ বিদ্যালয়ে যান। সেখানে তারা মিয়ানমারের বিজিপি ও সেনা সদস্যদের যাচাই-বাছাইসহ প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্ন করেন।

বিজিবি ও প্রশাসন জানিয়েছে, সকালে মিয়ানমারের বিজিপি ও সেনা সদস্যদের চারটি বাসে করে বিআইডব্লিউটিএ এর জেটি ঘাটে নিয়ে আসা হয়। সেখানে ইমিগ্রেশনসহ অন্যান্য কাজ শুরু হয়।

মিয়ানমারের বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, রাখাইন রাজ্যে সঙ্ঘাতের কারণে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে যেতে বাধ্য হওয়া মিয়ানমার প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যদের ফিরিয়ে আনতে মিয়ানমারের নৌ জাহাজ ইউএমএস চিন ডুইন বাংলাদেশে যাচ্ছে। ইয়াঙ্গুনে বাংলাদেশ দূতাবাস এবং সিত্তওয়েতে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের অবিচল প্রচেষ্টার ফলে আরো একবার বাংলাদেশী নাগরিকদের তাদের পরিবারের কাছে পাঠানো সম্ভব হয়েছে।

এদিকে মিয়ানমারের কারাগারে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা শেষে দেশে ফেরত আসতে ৪৫ বাংলাদেশি নাগরিককে বহনকারী জাহাজটি এখনও সাগরে রয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে মিয়ানমারের জাহাজটি থেকে ছোট ট্রলারে তুলে তাদের নিয়ে নুনিয়ারছড়ার বিআইডব্লিটিএ জেটি ঘাটে পৌঁছাবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

news24bd.tv/DHL

এই রকম আরও টপিক