উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম কেন, জানালেন সিইসি

কাজী হাবিবুল আউয়াল

উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম কেন, জানালেন সিইসি

অনলাইন ডেস্ক

রাজনৈতিকভাবে ব্যাপক অংশগ্রহণ হয়নি বলে উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। রোববার (৯ জুন) বিকেলে শেষ ধাপের স্থগিত উপজেলা নির্বাচন শেষে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।  

সিইসি জানান, সার্বিক বিশ্লেষণে নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে। রাজনৈতিক সদিচ্ছা ইতিবাচক ছিল উল্লেখ করে হাবিবুল আউয়াল বলেন, নির্বাচনে প্রশাসন ইসির নির্দেশনা পুরোপুরি পালন করেছে।

ভোটাররা ভোটকেন্দ্র যেন না আসতে পারে তেমন চেষ্টাও ব্যাপকভাবে করা হয়নি।  

শেষ ধাপের উপজেলা নির্বাচনে আজ বিভিন্ন অপরাধে দুই পোলিং অফিসারসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন জায়গায় সংঘর্ষে ৪ জন আহত হয়েছেন।  

ঘূর্ণিঝড় রিমালের কারণে স্থগিত হওয়া ১৯ উপজেলা পরিষদে সাধারণ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে।

আজ রোববার (৯ জুন) সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিকেল ৪টায় শেষ হয় ভোটগ্রহণ। এখন চলছে গণনা।

গত ৮ মে থেকে ধাপে ধাপে দেশের উপজেলাগুলোতে ভোটগ্রহণ করছে নির্বাচন কমিশন, যা আজ শেষ হচ্ছে। তবে, কয়েকটি উপজেলায় মেয়াদপূর্তি না হওয়ায় নির্বাচন হবে আগামী বছর। আজ ভোট উপলক্ষে উপজেলাগুলোর ১৭৯টি কেন্দ্রে গতকাল শনিবার ব্যালট পেপার পৌঁছানো হয়। আজ রোববার ভোরে ব্যালট পেপার যায় বাকি কেন্দ্রগুলোতে।  

আজ ১৯ উপজেলার মধ্যে বাগেরহাট জেলার শরণখোলা, মোড়েলগঞ্জ, মোংলা; খুলনা জেলার কয়রা, পাইকগাছা, ডুমুরিয়া; বরিশালের গৌরনদী, আগৈলঝাড়া; পটুয়াখালী জেলার সদর, মির্জাগঞ্জ, দুমকী; ভোলার লালমোহন, তজুমদ্দিন; ঝালকাঠির রাজাপুর, কাঠালিয়া; বরগুনার বামনা, পাথরঘাটা ও নেত্রকোনার খালিয়াজুরী উপজেলায় নির্বাচন হয়েছে ব্যালট পেপারে। আর পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ইভিএমে ভোটগ্রহণ হয়।  

এসব উপজেলায় নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ১১৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৩২ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭৯ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতে ৩০ লাখ ৪৬ হাজার ৮৮ জন ভোটার এক হাজার ১৮১ কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাচ্ছেন।
news24bd.tv/আইএএম

পাঠকপ্রিয়