বোমা বিস্ফোরণের মধ্যে দিয়ে জঙ্গি আস্তানার অভিযান সমাপ্তি

বোমা বিস্ফোরণের মধ্যে দিয়ে জঙ্গি আস্তানার অভিযান সমাপ্তি

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

জঙ্গি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে দুইদিনের অভিযানে অস্ত্র-গুলিসহ বিপুল পরিমাণ প্রশিক্ষণ সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে নেত্রকোনা জেলা পুলিশ।

আজ রোববার (৯ জুন) সন্ধ্যার আগে ঘটনাস্থলে বোমা বিস্ফোরণ ঘটানোর মধ্য দিয়ে জঙ্গি আস্তানার অভিযান শেষ করেছে ময়মনসিংহ রেঞ্জ ও নেত্রকোনা জেলা পুুলিশ। ঢাকা থেকে আগত সোয়াট টিম দিয়ে বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

অভিযান শেষে ময়মনসিংহ পুলিশ বিভাগের ডিআইজি শাহ আবিদ হোসেন সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

এসময় তিনি বলেন, নেত্রকোনার কাইলাটি ইউনিয়নের ভাসাপাড়া গ্রামের ড. আব্দুল মান্নানের বাড়িতে সোয়াট টিমসহ পুলিশের তল্লাশিতে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বেশ কয়েকটি বোমা পাওয়া যায়। এছাড়া ওয়াকিটকিসহ অন্তত ৮০ প্রকার জঙ্গি প্রশিক্ষণে ব্যবহৃত সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। একটি বিদেশি পিস্তল ও ১৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। জানা গেছে, এই অভিযান শেষ হলেও এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এদিকে, এই অভিযানের খবর পেয়েই সরে পড়ে এখানকার সদস্যরা। ফলে কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তাই গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এর আগে, ডিসপোজাল টিম বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। আধা ঘণ্টার বিরতি দিয়ে বোমা দুটির বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। তখন প্রায় এক কিলোমিটার এলাকা বোমা বিস্ফোরণের শব্দে কেপে উঠে। এ সময় এলাকার বাড়ি ঘরের লোকদের সরিয়ে দেয়া হয়।

এর আগে, গত ৫ জুন নরসিংদীর রায়পুর থেকে জঙ্গী সন্দেহে আটক করা হামিম হোসেন ফাহিম ওরফে আরিফ নেত্রকোনার বাসাপাড়া গ্রামের প্রকৌশলী ড. আব্দুল মান্নানের কাছ থেকে ভাড়া নিয়ে সেখানেই জঙ্গি তৎপরতার চালাত। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে এ বাড়ির খবর পায় নেত্রকোনা পুলিশ।

প্রেস ব্রিফিংয়ে নেত্রকোনার পুলিশ সুপার মো. ফয়েজ আহমেদ, অতিরিক্ত ডিআইজি আসাদুল্লাহ চৌধুরী, অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের (এটিইউ) পুলিশ সুপার মো. সানোয়ার হোসেন সহ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে পুলিশ সুপার মো. ফয়েজ আহমেদ বলেন, সোয়াট সদস্যরা গত রাতেই নেত্রকোনা পৌঁছায়। সকাল থেকে বাড়িটি তল্লাশি করে। জঙ্গি প্রশিক্ষণ দেয়া হতো এখানে।

news24bd.tv/SHS 

পাঠকপ্রিয়