৩২ বলেই উগান্ডাকে হারালো নিউজিল্যান্ড

৩২ বলেই উগান্ডাকে হারালো নিউজিল্যান্ড

অনলাইন ডেস্ক

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে উগান্ডাকে সহজে হারিয়ে দিয়েছে নিউজিল্যান্ড। জিততে মাত্র ৩২ বল খেলতে হয়েছে কিউইদের।  

ত্রিনিদাদে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে  কিউইদের বিপক্ষে উগান্ডা ৪০ রান তুলতে সক্ষম হয়। বিশ্বকাপে যা দ্বিতীয় সর্বনিম্ন।

ঠিক আগের ম্যাচেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৩৯ রানে অলআউট হয়েছিল দলটি।  আজকের ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা ৪১ রান তুলে নিয়েছে ৯ উইকেট।  

ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ড জিতেছে দুই বোলার টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্টের দুর্দান্ত নৈপুণ্যে। প্রথম ওভারেই দুই উইকেট তুলে নিয়ে শুরুটা করেন বোল্ট।

তবে উইকেটসংখ্যায় পরে তাঁকে ছাড়িয়ে যান সাউদি। ডানহাতি এ পেসার ৪ ওভার বল করে মাত্র ৪ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট, ছিল একটি মেডেনও। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ৪ ওভারের স্পেলে এটি সেরা ইকোনমির রেকর্ড। সাউদি ভেঙেছেন উগান্ডারই ফ্রাঙ্ক এনসুবুগার রেকর্ড, যিনি পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ৪ ওভারে ২ মেডেনসহ ৪ রানে নিয়েছিলেন ২ উইকেট।

আজ এনসুবুগার দলের বিপক্ষে বোল্ট ৪ ওভারে ১ মেডেনসহ ৭ রানে নেন ২ উইকেট। ৩.৪ ওভারে ৮ রানে ২ উইকেট মিচেল স্যান্টনারের। নিউজিল্যান্ডের বোলিং তোপে ১৫ রানে ৫ উইকেট হারানো উগান্ডা ৭ উইকেটে পৌঁছে গিয়েছিল ৩৯ রানে। কিন্তু আঠারতম ওভারে সাউদি টানা দুই বলে উইকেট নিয়ে আরেকবার ৩৯-এ গুটিয়ে যাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি করেন। হ্যাটট্রিক ঠেকাতে নামা কসমস কিউয়েতা এক রান নিয়ে সেখান থেকে উদ্ধার করলেও পরের ওভারে স্যান্টনারের বলে আউট হন।

উগান্ডার পক্ষে সর্বোচ্চ ১৮ বলে ১১ রান করেন কেনেথ ওয়াসোয়া। দুই অঙ্কের ইনিংসও এই একটিই। ওপেনার রোনাক প্যাটেল ২ রান করতে খেলেন ২০ বল, যা বিশ্বকাপে কমপক্ষে ২০ বল খেলা ইনিংসগুলোর মধ্যে সর্বনিম্ন স্ট্রাইক রেট (১০)। দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্ট্রাইক রেটের জন্ম হয়েছে ব্রায়ান মাসাবার জন্য। যিনি ২০ বল খেলে অপরাজিত থাকেন ৩ রানে।

নিজেদেরই ৩.২৫ রান রেটকে। আর এমন ভুলে যাওয়ার মতো হার দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শেষ করেছে উগান্ডা। প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে আসা আফ্রিকান দলটি দেশে ফিরছে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে পাওয়া একমাত্র জয় নিয়ে।

আর আফগানিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিশ্চিত হওয়া নিউজিল্যান্ড যাওয়ার আগে আরও একটি ম্যাচ খেলবে। ১৭ জুনের সেই ম্যাচে প্রতিপক্ষ পাপুয়া নিউগিনি।
news24bd.tv/আইএএম

পাঠকপ্রিয়