বিলীন হওয়ার পথে পুরান ঢাকার পোস্তায় কাঁচা চামড়ার আড়ত

সংগৃহীত ছবি

বিলীন হওয়ার পথে পুরান ঢাকার পোস্তায় কাঁচা চামড়ার আড়ত

মুরসালিন হক জুনায়েদ

প্রায় বিলীন হওয়ার পথে পুরান ঢাকার পোস্তায় ঐতিহ্যবাহী কাঁচা চামড়ার আড়ত। ২৬৭টি আড়তের মধ্যে এখন টিকে আছে মাত্র ৩৭টি, পুরোপুরি হারিয়ে গেছে ১০০টি। হাজারীবাগের ট্যানারি সাভারের হেমায়েতপুরে সড়ে যাওয়া বড় কারণ হিসেবে দেখছেন ব্যবসায়ীরা। তবে এমন পরিস্থিতিতেও ঈদুল আজহার প্রথম দিনই লক্ষ্য মাত্রার ৮০ শতাংশ কাঁচা চামড়া মজুদ করেছেন আড়তদাররা।

পুরান ঢাকার লালবাগের সামসুল ও স্বাধীন। কুরবানির ঈদে কাঁচা চামড়ার মৌসুমি ব্যবসায়ী এই দুই ভাইয়ের এখন চরম ব্যস্ততা। রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কুরবানির পশুর চামড়া নিয়ে আগতদের কাছ থেকে দরদাম করে চামড়া কেনাকাটায় ব্যস্ত তারা। তাদের মতে, গেলো বছরের তুলনায় এবার বাজার ভালো।

যদিও অসন্তোষ রয়েছে বিক্রেতাদের মাঝে।

লালবাগজুড়ে সড়কের ওপর স্তুপ করা কাঁচা চামড়া চলে যাচ্ছে আড়তে। যেখানে লবণ দিয়ে মজুদ করা হবে পণ্যটি। ব্যবসায়ীরা বলছেন, পোস্তায় ১ লাখ পিস চামড়া মজুদের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়ে যাবে মঙ্গলবারেই।

তবে ঈদুল আজহার পরেই, কাঁচা চামড়া নিয়ে পোস্তায় যে তুমুল ব্যস্ততার চিত্র ছিলো শত বছরের ঐতিহ্য, সেটি এখন অনেকটাই কম। ট্যানারীশিল্প সাভারে সরে যাওয়াকে বড় কারণ হিসেবে দেখছেন এখানকার ব্যবসায়ীরা।

কাঁচা চামড়ার আড়তদারদের সংগঠন বিএইচএসএমএ'র তথ্য মতে, এক দশক আগেও পুরান ঢাকার পোস্তায় ২৬৭টি আড়ত ছিলো। ২০২৩ সালে এই সংখ্যা নেমে আসে ৬৭টিতে। আর বর্তমানে আড়ত আছে মাত্র ৩৭টি। পুরোপুরি হারিয়ে গেছে ১০০ আড়ত।

ব্যবসায়ীদের দাবী, সরকার নির্ধারিত দামেই বেচাকেনা হচ্ছে কোরবানির পশুর চামড়া।

news24bd.tv/TR   
 

পাঠকপ্রিয়