যুক্তরাজ্যে এবারের সাধারণ নির্বাচনে নারীদের জয়জয়কার 

বিজয়ী নারী নেতৃত্ব

যুক্তরাজ্যে এবারের সাধারণ নির্বাচনে নারীদের জয়জয়কার 

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাজ্যের এবারের সাধারণ নির্বাচনে অতীতের তুলনায় নারীরা বেশি জয় পেয়েছেন। এবার নারী সংসদ সদস্য হিসেবে জয়ী হয়েছেন ২৪২ জন। এরমধ্যে চার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ।  
বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়,যুক্তরাজ্যের অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে ২৪ সদস্যবিশিষ্ট নতুন মন্ত্রিসভায় এবার জায়গা করে নিয়েছেন ১১ জন নারী।

এবারই প্রথম একজন নারীকে অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি হলেন, র্যা চেল রিভস।
এছাড়া , দেশটির নতুন উপ-প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অ্যাঞ্জেলা রেইনারকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এই পদের পাশাপাশি তাকে সমতাকরণ এবং আবাসনের দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে।
শুধু তাই নয়, নতুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছেন ৫৫ বছর বয়সী ইয়েভেত্তে কুপার। অভিবাসন নীতির যেসব কার্যক্রম এখনো বাকি আছে সেগুলো নিয়ে কাজ করবেন তিনি। শিক্ষামন্ত্রী হয়েছেন ব্রিজেট ফিলিপসন (৪০)। আইনমন্ত্রী করা হয়েছে শাবানা মাহমুদকে। ৪৩ বছর বয়সী তুখোড় এই আইনজীবী অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে রাজনীতিতে এসেছেন। সাবেক কনজারভেটিভ নেত্রী লিজ ট্রাসের পর তিনিই দ্বিতীয় নারী হিসেবে এই দায়িত্ব পেলেন। শ্রম এবং কারামন্ত্রী হিসেবে লিজ কেনডাল ও পরিবহনমন্ত্রী হিসেবে লুইস হেইঘকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।  
সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী হয়েছেন লিসা ন্যান্ডি।  ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউজ অব কমন্সের নেতা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন লুসি পাওয়েল।  উচ্চকক্ষ হাউজ অব লর্ডসের নেতা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন অ্যাঞ্জেলা লেডি স্মিথ (৬৫)।
ওয়েলস বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন ৫৭ বছর বয়সী জো স্টিভেনস।  
এবার নিরঙ্কুশ জয় পেয়ে সরকার গঠন করেছে লেবার পার্টি।  এর আগে ২০১৯ সালে যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে নারী এমপি নির্বাচিত হন ২২০ জন। ২০১৭ সালে এমপি হন ২০৭ জন এবং ২০১৫ সালে জয়ী হন ১৯৬ জন। অর্থাৎ এবার রেকর্ড সংখ্যক নারী নিয়ে গঠিত হয়েছে ‍যুক্তরাজ্যের নতুন সরকার।

news24bd.tv/ডিডি