যেভাবে সানস্ক্রিন ব্যবহারে উপকার মিলবে 

যেভাবে সানস্ক্রিন ব্যবহারে উপকার মিলবে 

অনলাইন ডেস্ক

কখন সানস্ক্রিন মাখবেন, দিনে কয়বার মাখবেন-তা হয়তো অনেকেই জানেন না। তবে ত্বক চিকিৎসকেরা বলছেন, সানস্ক্রিন মাখার একটা বিশেষ পদ্ধতি আছে। সেই উপায়ে মাখলে বার বার সানস্ক্রিন লাগানোর ঝক্কি থাকবে না। একবার মুখে, হাতে, গলায় মাখলেই সারা দিনের জন্য আপনি নিশ্চিন্ত।

পাবেন উপকারিতাও।

শুধু যে গরমকালে সানস্ক্রিন মাখতে হয় তা তো নয়। রোদ, বৃষ্টি বা ঠান্ডার সময় হোক, রাস্তায় বেরোনোর আগে সানস্ক্রিন মাখতেই হয়। ত্বক চিকিৎসকেরা এমনই পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

কারণ সূর্যের ক্ষতিকারক অতিবেগনি রশ্মি থেকে ত্বককে সুরক্ষা দেয় সানস্ক্রিন। তা না হলে অল্প দিনেই মুখে কালচে দাগছোপ পড়তে বাধ্য। কিন্তু একবার সানস্ক্রিন মাখলে কিছুক্ষণেই ঘামের জন্য তা উঠে যায়। বার বার মুখ মুছলে বা মুখে পানি দিলেও তাই হয়। তাহলে উপায় কী?

‘ডবল লেয়ার’ পদ্ধতিতে সানস্ক্রিন মেখে দেখুন। সেটা কী? ত্বক চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, একবার নয়, পর পর দু’বার মাখতে হবে সানস্ক্রিন। প্রথমবার ভাল করে মুখে, গলায়, হাতে সানস্ক্রিন মেখে নিন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। সানস্ক্রিন ত্বকে বসে গেলে আবারও মাখুন। এইভাবে ত্বকের উপরে সানস্ক্রিনের দু’টি স্তর তৈরি হবে। এই দুই স্তর দীর্ঘ সময়ের জন্য ত্বককে সুরক্ষা দেবে।

সানস্ক্রিনের ‘ডবল লেয়ার’ পদ্ধতির অনেক সুবিধা আছে। ত্বক চিকিৎসকেদের ব্যাখ্যা, সূর্যের অতিবেগনি রশ্মি সানস্ক্রিনের দুই স্তর ভেদ করে ত্বকের উপর প্রভাব ফেলতে পারবে না। তাই এইভাবে যদি সানস্ক্রিন মাখা হয় তা হলে দীর্ঘ সময় রোদে থাকলেও মুখে চট করে দাগছোপ পড়বে না।

আমাদের দেশের আবহাওয়ায় এসপিএফ ৩০ যুক্ত সানস্ক্রিনই ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়। ত্বকে ব্রণ, ফুসকুড়ির সমস্যা না থাকলে এসপিএফ ৩০ সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে পারেন। তবে ত্বক খুব স্পর্শকাতর হলে বা ত্বকে কোনও সমস্যা থাকলে সানস্ক্রিন ‘ডবল লেয়ার’ পদ্ধতিতে দু’বার ব্যবহার করবেন কি না, তার জন্য ত্বক চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই উচিত।

news24bd.tv/TR 

এই রকম আরও টপিক

পাঠকপ্রিয়