বেইজিংয়ের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, কী থাকছে এই সফরে?

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বেইজিংয়ের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, কী থাকছে এই সফরে?

অনলাইন ডেস্ক

চার দিনের চীন সফরে আজ সোমবার (৮ জুলাই) সকালে বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইট যোগে বেইজিংয়ের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই দিন চীনের স্থানীয় সময় বিকেল ৬টায় বেইজিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবেন তিনি। সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করার কথা রয়েছে।

চীনের প্রিমিয়ার অব দ্য স্টেট কাউন্সিলার লি ছিয়াং-এর আমন্ত্রণে আগামী ৮-১১ জুলাই চীনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই রাষ্ট্রীয় সফর।

প্রধানমন্ত্রীর এই বেইজিং সফরে ২০টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হতে পারে। পাশাপাশি কিছু প্রকল্প উদ্বোধনের ঘোষণা দেয়া হবে। আগামী ৯ জুলাই সকালে প্রধানমন্ত্রী এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক- এর প্রেসিডেন্ট জিন লিকুন এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। একইদিন  প্রধানমন্ত্রী সাং-গ্রি-লা সার্কেলে অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশ-চীন বাণিজ্য সম্ভাবনা শীর্ষক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন।

সম্মেলনটিতে অংশগ্রহণের জন্য বাংলাদেশ হতে একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদল চীন সফর করবে।

ওইদিন দুপুরে প্রধানমন্ত্রী চাইনিজ পিপলস পলিটিক্যাল কনসালটেটিভ কনফারেন্স এর ১৪তম জাতীয় কমিটির চেয়ারম্যান ওয়াং হানিং এর সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন। এই দিন বিকেলে প্রধানমন্ত্রী ঐতিহ্যবাহী তিয়েনআমেন স্কয়ারে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করবেন। রাতে তিনি বেইজিংস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত নৈশভোজে অংশগ্রহণ করার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

সফরের তৃতীয় দিনে ১০ জুলাই প্রধানমন্ত্রী গ্রেট হল অব দ্য পিপল- এ চীনের প্রিমিয়ার অব দ্য স্টেট কাউন্সিল লি ছিয়াং এর সাথে সাক্ষাৎ করবেন। সাক্ষাতের শুরুতে প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে একটি অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। একই স্থানে প্রধানমন্ত্রী এবং চীনের প্রিমিয়ার অব দ্য স্টেট কাউন্সিল দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদল সহ দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন।

এরপর অর্থনৈতিক ও ব্যাংকিং খাত, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, ডিজিটাল ইকোনমি, অবকাঠামোগত উন্নয়ন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রভৃতি খাতে সহায়তা, ৬ষ্ঠ ও ৯ম বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ ব্রিজ নির্মাণ, বাংলাদেশ হতে কৃষিপণ্য রপ্তানি, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, পিপল টু পিপল কানেকটিভিটি প্রভৃতি বিষয়ে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের সম্ভাবনা আছে। প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে আয়োজিত ব্যাংকুয়েটের (ভোজের) মাধ্যমে গ্রেট হলে উল্লিখিত সাক্ষাতের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হবে।

১০ জুলাই বিকেলে প্রধানমন্ত্রী গ্রেট হল অব দ্য পিপল-এ চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং এর সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন। প্রধানমন্ত্রীর এই সফর উপলক্ষে বাংলাদেশ ও চীন একটি যৌথ বিবৃতি প্রদান করবে। সবশেষ ১১ জুলাই বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী চীন ত্যাগ করে দুপুর ২টায় ঢাকা অবতরণ করবেন বলে জানা গেছে।

news24bd.tv/SC